তাজমহল-কে বলা হয় প্রেমের সৌধ। বেগম মুমতাজ-এর প্রতি বাদশা শাহজাহান-এর প্রেমের প্রতীক। আর সেই তাজনহলের শহর আগ্রাতেই এক ব্যতিক্রমী প্রেম নিয়ে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। এক ৬০ বছরের প্রৌঢ়ার প্রেমে হাবুডুবু খাচ্ছে এক ২২ বছর বয়সী যুবক, এমনটাই জানা গিয়েছে। তাঁকে সাবধান করার পরও ওই প্রৌঢ়ার সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক শেষ করতে অস্বীকার করে যুবক। এরপরই তাঁর বিরুদ্ধে আগ্রার এতমাদুদ্দৌলা থানায় 'এলাকার শান্তি বিঘ্নিত করার' অভিযোগ করা হয়েছে।

পুলিশ জানিয়েছে, গত বৃহস্পতিবার (২৩ জানুয়ারি), ওই মহিলার স্বামী ও ছেলে ওই যুবকের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করতে গিয়েছিলেন। একই সময়ে থানায় পৌঁছায় ওই যুবকও। দুই পক্ষ মুখোমুখি হতেই দুই পরিবারের মধ্যে থানার মধ্যেই তীব্র বাদানুবাদ শুরু হয়ে যায়। এমনকী সকলের সামনে ওই প্রৌঢ়া মহিলা এবং ২২ বছরের যুবক জানান তাঁরা একে অপরকে বিয়ে করতে চান, এমনটাই জানা গিয়েছে।

প্রকাশ নগর এলাকার বাসিন্দা ওই প্রৌঢ়া কিন্তু সাতটি সন্তানের মা। তাঁর সাতজন নাতি-নাতনিও রয়েছে। পুলিশ আরও জানিয়েছে ওই যুবক এবং প্রৌঢ়ার দুই পরিবারের সদস্যদের কারোরই এই সম্পর্কে মত নেই। দুই পরিবারের তরফ থেকেই এই ব্যতিক্রমী প্রেমিক প্রেমিকা-কে সম্পর্ক ভেঙে দেওয়ার জন্য বোঝানো হয়েছে। কিন্তু দু'জনই এখনও পর্যন্ত বিয়ে করার ইচ্ছায় অনড়। পরিস্থিতি সামাল দিতে পুলিশ আপাতত ২২ বছরের ওই প্রেমিকের বিরুদ্ধে  এলাকার শান্তি বিঘ্নিত করার অভিযোগে এফআইআর নথিভুক্ত করেছে। কিন্তু তাতে কাজ হবে বলে আত্মবিশ্বাসী নয় পুলিশই।