কেরলের এক তিন বছরের শিশুও এবার আক্রান্ত হল মারণ করোনায়। জানা গেছে সম্প্রতি ওই শিশুচি তার মা-বাবার সঙ্গে ইতালি থেকে দেশে ফেরে। শিশুটিকে বর্তমানে এরনাকুলাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে রাখা হয়েছে।

আরও পড়ুন: ভালবাসার কাছে হেরে গেল করোনা, আইসোলেশন ওয়ার্ডও বিচ্ছেদ ঘটাতে পারল না বৃদ্ধ দম্পতির

 

 

গত ৭ মার্চ মা-বাবার সঙ্গে ইতালি থেকে ফেরে ৩ বছরের শিশুটি। কোচি বিমানবন্দরে তাঁদের করোনা ভাইরাস সংক্রান্ত স্ক্রিনিং হয়। এরপরেই তার শরীরে করোনা আভরাসের অস্তিত্ব পাওয়া যায়। শিশুটিকে এখন পরিবারের থেকে আলাদা রাখা হয়েছে।  এদিকে রবিবারই দেশে আরও ৫ জনের শরীরে কোভিড-১৯ ভাইরাস পাওয়া গেছে।  আক্রান্তরা সকলেই ইতালি থেকে দেশে ফেরেন বলে কেন্দ্রীয় স্বাস্থমন্ত্রকের তরফে জানান হয়েছে। এরা সকলেই কেরলের বাসিন্দা। ফলে একলাফে ভারতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৪১। 

আরও পড়ুন: নজির স্থাপন করলেন শতায়ু বৃদ্ধ, করোনাকে হারিয়ে বাড়ি ফিরলনে সুস্থ হয়ে

এদিকে আগ্রায় করোনা আক্রান্ত ব্যবসায়ীর সংস্পর্শে আসা ফ্যাক্টরি শ্রমিকের দেহেও কোভিড-১৯ ভাইরাসের সংক্রমণ পাওয়া গিয়েছে। আগ্রা জেলা হাসপাতালে তাঁর চিকিৎসা চলছে। এছাড়াও উত্তরপ্রদেশের আলিগড় ও সিদ্ধার্থনগরে তিন জনের শরীরে করোনার লক্ষ্মণ দেখা গিয়েছে। তাদের বিশেষ পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে।

বিশ্বে বর্তমানে এক লক্ষেরও বেশি মানুষ করোনায় আক্রান্ত। পৃথিবীর ৯০টিরও বেশি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে এই মারণ ভাইরাস। ভারতেও যেভাবে করোনা রোগীর সংখ্যা বাড়ছে তাতে আতঙ্ক ছড়াচ্ছে গোটা দেশেই। এই পরিস্থিতিতে আলিগড় মুসলিম বিশ্ববিদ্যালয় তাদের সবরকম পরীক্ষা স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। বেঙ্গালুরুরে বেশিরভাগ স্কুলেই প্রি-প্রাইমারি সেকশন বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।