বছর ঘুরতেই উপস্থিত করোনার দ্বিতীয় ঢেউ। ঝড়ের বেগে বেড়ে চলেছে আক্রান্তের সংখ্যা। নতুন স্টেন-এ সংক্রমণ ঐরও বেশি। যার ফলে পরিস্থিতি দ্রুত অবনতী হচ্ছে, বিভিন্ন রাজ্যে বর্তমানে ছবিটা যাচ্ছে পাল্টে। ২০২০ শেষে যে অভিশাপ কাটিয় ওঠার স্বপ্ন দেখেছিল সাধারণ মানুষ, আবারও স্বাভাবিকভাবে উপার্জনের চেষ্টায় পথে নেমেছিল সকলে, কয়েকমাসের মধ্যেই আবারও ভয়ের কারণ হয়ে দাঁড়ালো সেই মারণ ভাইরাস। মার্চ ও এপ্রিলে এই সংক্রমণ তুঙ্গে পৌঁছে যাওয়ার কথাই জানানো হচ্ছে স্বাস্থ্য মন্ত্রক থেকে। 

আরও পড়ুন- নন্দীগ্রামের তৃণমূল প্রার্থী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের রাজনৈতিক সফর, 'অগ্নিকন্যা' থেকে 'দিদি' হওয়ার লড়া

বর্তমানে মোট করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা দেশে  ১ কোটি ২১ লক্ষ ৪৯ হাজার ৩৩৫ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে আক্রান্ত ৫৩ হাজার ৪৮০ জন। বাড়ছে মৃত্যুর সংখ্যাও। ডিসেম্বরের পর আবার মার্চ মাসে ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ৩৫০। যার ফলে উদ্বেগ ছড়াচ্ছে বিভিন্ন মহলে। আংশিক লকডাউন, নাইট কার্ফুর মত একাধিক সিদ্ধান্ত নিয়েছে বেশ কয়েকটি রাজ্য। নাসিকে বাজারে ৫ টাকার টিকিট চালু করা হল ভিড় নিয়ন্তরণে রাখতে। 

আরও পড়ুন- দ্বিতীয় দফা ভোটার আগেই পর্দা ফাঁস জাল ভোটার সমীক্ষার, তদন্তে পশ্চিম মেদিনীপুর পুলিশ

যে দশ রাজ্যে বর্তমানে পরিস্থিতি ভয়াবহ আকার ধারণ করছে, তার মধ্যে প্রথমে রয়েছে মহারাষ্ট্র। ২৪ ঘণ্টায় ২৭ হাজার ৯১৮ জন আক্রান্ত হয়েছেন এ রাজ্যে। এছাড়াও রয়েছে, কর্ণাটক, তামিলনাড়ু, গুজরাত, মধ্যপ্রদেশ, কেরল রাজস্থান, দিল্লি প্রভৃতি। মহারাষ্ট্রের এই পরিস্থিতিতে একে একে বিটাউনেও আক্রান্ত হয়ে পড়ছে তারকারা। এর পাশাপাশি পশ্চিমবঙ্গে চলছে নির্বাচন। তার মাঝেই দৈনিক সংক্রমণের হার বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫০০ জন। চলছে টিকা করণ।