ফের রেলস্টেশনে ঘটল বিপত্তি। সকালের ব্যস্ত সময়ে ভোপাল স্টেশনে হুড়মুড়িয়ে ভেঙে গেল ফুটব্রিজ। দুর্ঘটনায় এখনও পর্যন্ত আটজনের আহত হওয়ার খবর মিলেছে। বরাতজোরে রক্ষা পেয়েছেন অনেকেই। আহতদের ক্ষতি দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছে রেল। কিন্তু ফুটব্রিজটি ভেঙে পড়ল কী করে? শুরু হয়েছে তদন্তও।

ভোপাল স্টেশনের প্ল্যাটফর্মে তখন ট্রেনের অপেক্ষায় করছিলেন বহু যাত্রী। বৃহস্পতিবার সকালে আচমকাই তিন নম্বর প্ল্যাটফর্ম লাগোয়া ফুটব্রিজ একাংশ হুড়মুড় করে ভেঙে পড়ে। ঘটনার সময়ে ফুটব্রিজের নিচেও অনেকেই দাঁড়িয়েছিলেন বলে জানা গিয়েছে। ফুটব্রিজের স্ল্যাবের আঘাতে প্রাণহানির ঘটনা ঘটতেই পারত। বরাতজোরে প্রাণ বেঁচে গিয়েছেন যাত্রীরা। দুর্ঘটনায় এখনও পর্যন্ত আট জন আহত হয়েছেন বলে জানা গিয়েছে।  তাঁদের সকলকেই উদ্ধার করে ভর্তি করা হয়েছে হাসপাতালে। আহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। রেলের তরফে জানানো হয়েছে, আহতদের কারও আঘাতই গুরুতর নয়। ঘটনায় কেউ মারাও যাননি। কীভাবে ফুটব্রিজটি ভেঙে পড়ল, তা তদন্ত করে দেখা হবে। তদন্তে যদি কেউ দোষী প্রমাণিত হন, তাহলে তাঁর বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।  

 

 

উল্লেখ্য, বছর দুয়েক আগে একই ঘটনা ঘটেছিল মুম্বইয়ে। সেবার ভরসন্ধেবেলায় ছত্রপতি শিবাজি টার্মিনাস স্টেশনে এক নম্বর প্ল্য়াটফর্মে উত্তর দিকে ভেঙে পড়ে ফুটব্রিজের একাংশ। ধ্বংসাবশেষের নিচে চাপা পড়ে প্রাণ হারিয়েছেন ৬ জন। আহত হন কমপক্ষে ৩৪ জন।