বিশ্ববিদ্যালয়ের মেয়েদের সমস্যায় ফেলায় ফের অভিযোগ উঠল এক অধ্যাপকের বিরুদ্ধে। সংবাদ মাধ্যমে ইতিমধ্যেই ছড়িয়ে পড়তে শুরু করেছে এই খবর। যেখানে বলা হচ্ছে,উত্তরাখণ্ডের জি বি পন্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক মাঝরাতে এক ছাত্রীকে ডেকে পাঠিয়ে অদ্ভুত আবদার করেন। আর তা প্রকাশ্যে আসতেই হুলুস্থূল কাণ্ড। 

জানা গিয়েছে, এক ছাত্রীকে মাঝরাতে ফোন করে ওই অধ্যাপক ডেকে পাঠান এবং বলেন, তার বাড়িতে স্ত্রী নেই তাই রান্না করে দিতে হবে। বিশ্বদ্যালয়ের ডিন ডক্টর সলিল তিওয়ারি জানান, অক্টোবরে বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিসিপ্লিনারি কমিটির বৈঠকে উপাচার্যের কাছে এই অভিযোগ করে ওই ছাত্রী। কিন্তু কোনও লিখিত অভিযোগ না করায় ওই অধ্যাপকের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ গ্রহণ করা যায়নি। 

৬১ বছরের গীতা রানির জীবনে যেন দেবদূত দিলীপ, এই কাহিনি যা মানুষকে অনুপ্রেরণা জোগাবে

ছাত্রীদের অভিযোগ, ওই অধ্যাপক যিনি হোস্টেলের ওয়ার্ডেন-ও তিনি এক ছাত্রীকে বারবার ফোন করে বিরক্ত করছিলেন মাঝরাতে। তার ফোন কেটে দেওয়া সত্ত্বেও ফোন কল করা থামাননি ওই অধ্যাপক। ছাত্রীটি জানায়, একদিন রাতে ওই অধ্যাপক তাকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানায় মেসেজ করে, এবং সেই সঙ্গে বলেন বাড়িতে তাঁর স্ত্রী নেই, কে রান্না করবে, তাই ছাত্রীটিকে তার বাড়ি চলে আসার জন্যও করেন। এই মেসেজটি দেখানোর পরেও বিশ্ববিদ্যালয় কোনও পদক্ষেপ নেয়নি বলে জানা যাচ্ছে। যদিও বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, অক্টোবরেই ওয়ার্ডেন-এর দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে অভিযুক্ত অধ্যাপককে। 

জোর করে মূত্রপান দলিত যুবককে, নারকীয় ঘটনার সাক্ষী রইল পঞ্জাব

আরও জানা যাচ্ছে, রাজ্যপাল উপাচার্যকে বিষয়টি খতিয়ে দেখার নির্দেশ দিয়েছেন। পাশাপাশি বিশ্ববিদ্যালয়ের নিরাপত্তা ব্যবস্থা আরও আঁটোসাঁটো করার নির্দেশ দেন।