১৯৬৬ সালে শিবসেনা দল গঠন করেছিলেন বালাসাহেব ঠাকরে। তারপর থেকে তিন প্রজন্মকে রাজনীতিতে দেখা গিয়েছে - বালাসাহেবের পর উদ্ধব ও রাজ ঠাকরে, তারপর উদ্ধবের পুত্র আদিত্য ঠাকরে। কিন্তু এতদিনের মধ্যে কেউই একবারও ভোটে লড়েননি। অবশেষে ঠাকরে পরিবারের সেই প্রথা ভাঙতে চলেছেন শিবসেনা যুব দলের সভাপতি আদিত্য ঠাকরে।

সোমবার মহারাষ্ট্রে এক জনসভায় বালাসাহেব ঠাকরের নাতি আদিত্য ঘোষণা করেছেন আসন্ন মহারাষ্ট্র রাজ্যসভা নির্বাচনে তিনি মুম্বইয়ের ওরলি আসন থেকে লড়বেন। ওরলি থেকে লড়লেও পুরো মহারাষ্ট্রই তাঁর কর্মভূমি হবে বলে জানিয়েছেন তিনি। সেই সঙ্গে বলেছেন, বালাসাহেব ও তাঁর বাবা উদ্ধবকে মহারাষ্ট্রবাসী যে ভালবাসা দিয়েছে, গত কয়েকদিনের যাত্রায় তিনি সেই একই ভালবাসা পেয়েছেন।

এর আগে ২০১৪ সালের মহারাষ্ট্র নির্বাচনে লড়বেন বলে ঠিক করেছিলেন উদ্ধব ঠাকরের খুড়তুতো ভাই তথা মহারাষ্ট্র নবনির্মান সেনা দলের প্রতিষ্ঠাতা রাজ ঠাকরে। তবে পরে মত বদলান। তাই আদিত্যই পরিবারের প্রথম হিসেবে ভোটে লড়বেন।

এদিকে আদিত্য ভোটে লড়াবেন জানার পর থেকেই তিনি মন্ত্রী বা মুখ্যমন্ত্রী হবেন কিনা তাই নিয়ে জল্পনা শুরু হয়েছে। বালাসাহেবের নাতি নিজে যদিও বলেছেন, তিনি মন্ত্রী বা বিধায়ক হওয়ার জন্য ভোটে লড়ছেন না, জনগণের সেবা করতেই ভোটের ময়দানে এসেছেন তিনি। কিন্তু জানা গিয়েছে, ভোটে তাঁকেই মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী করে লড়তে চলেছে শিবসেনা। গত শনিবারই উদ্ধব ঠাকরে জানিয়েছিলেন, তিনি বালাসাহেবকে কথা দিয়েছিলেন একজন শিবসৈনিককে তিনি মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রীর পদে বসাবেন। সেই সৈনিকই আদিত্য, এমনটাই মনে করছে সংশ্লিষ্ট মহল।