গত ১৮ বছর ধরে কংগ্রেস করেছেন। ছিলেন ১৭ বছরের সাংসদ। কিন্তু পুরনো দলে কাজ করতে পারছেন না এই অভিযোগ তুলে সদ্য শিবির বদলেছেন জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া। আর এই দলবদলের ২৪ ঘণ্টা যেতে না যেতেই তাঁর বিরুদ্ধে নড়েচড়ে বসল  মধ্যপ্রদেশ সরকার। গোয়ালিয়রের মহারাজার বিরুদ্ধে থাকা পুরনো একটি জমি জালিয়াতির মামলা নতুন করে খুলল মুখ্যমন্ত্রী কমলনাথের সরকার।

জ্যোতিরাদিত্যের বিরুদ্ধে জমি বিক্রির ক্ষেত্রে নথিপত্র জাল করার অভিযোগ উঠেছিল ২০১৪ সালে। সেই সময় সরকারি জমি বিক্রির অভিযোগও ছিল গোয়ালিয়রের মহারাজার বিরুদ্ধে। এরপর ২০১৮ সালে সেই মামলা বন্ধ করে দিয়েছিল মধ্যপ্রদেশ সরকার। কিন্তু গত বুধবার জ্যোতিরাদিত্য দল বদলাতেই সেই মামলার খাতা নতুন করে খুলল মধ্যপ্রদেশের বর্তমান কংগ্রেস সরকার। একদা যেদলের হয়ে হয়ে কাজ করে এসেছেন মাধবরাও সিন্ধিয়ার ছেলে। 

আরও পড়ুন: বেঙ্গালুরুতে এবার করোনায় আক্রান্ত গুগল কর্মী, দেশে ক্রমেই বাড়ছে আতঙ্ক

জানা যাচ্ছে, ২০১৪ সালে সুধীন্দ্র শ্রীবাস্তব নামে এক ব্যক্তি জ্যোতিরাদিত্যর মা মাধবী রাজে সিন্ধিয়ার থেকে জমি কেনেন।  জমি রেজিস্ট্রির সময় জালিয়াতি হয়েছিল বলে অভিযোগ ওঠে। ১৫,৮০০ বর্গফুটের জমি থেকে সেই সময় ৬,০০০ বর্ঘফুট বাদ দিয়ে রেজিস্ট্রি করা হয়েছিল বলে অভিযোগ কোল হয়। এরপরেই জ্যোতিরাদিত্য সহ তাঁর পরিবারের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের হয়। ১০ হাজার কোটি টাকার সেই জমি জালিয়াতি মামলায় নতুন করে তদন্ত শুরু করেছে মধ্যপ্রদেশ সরকারের আর্থিক অপরাধ দফতর। 

গত বুধবারই দিল্লিতে বিজেপির সদর দফতরে গিয়ে গেরুয়া পতাকা হাতে নিয়েছেন জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া। তার আগে সনিয়া গান্ধীকে চিঠি লিখে কংগ্রেসের সঙ্গে সমস্ত সম্পর্ক ছিন্ন করেছেন। গোয়ালিয়রের মহারাজা  শিবির বদলাতেই রাজনৈতিক প্রতিশোধ চরিতার্থ করতেই কমলনাথ সরকার পুরনো মামলা খুলতে চাইছে বলে অভিযোগ জ্যোতিরাদিত্যর সহযোগীদের।

আরও পড়ুন: করোনা আক্রান্ত কানাডিয়ান প্রধানমন্ত্রীর স্ত্রী, হ্যান্ডশেক ছেড়ে 'নমস্কার' করছেন ট্রাম্প

এদিকে এখনও রাজনৈতিক সংকট বর্তমান মধ্যপ্রদেশের কংগ্রেস সরকারের। জ্যোতিরাদিত্য শিবিরের ২২ জন বিধায়ক কংগ্রেস থেকে ইস্তফা দিয়েছে বলে দাবি করছে মধ্যপ্রদেশ সরকার। এই অবস্থায় আগামী ১৬ মার্চ মধ্যপ্রদেশ বিধানসভায় আস্থাভোট চাইছে বিজেপি। এর মাঝেই করোনা আতঙ্কের কারণ দেখিয়ে অধিবেশন মুলতুবি করতে চাইছে ক্ষমতায় থাকা কংগ্রেস। শুক্রবার রাজ্যপাল লালজি ট্যান্ডনের  দ্বারস্থ হন মুখ্যমন্ত্রী কমলনাথ। এদিকে মধ্যপ্রদেশে জ্যোতিরাদিত্যের অনুগামী কংগ্রেস বিধায়করা এবার বিজেপিতে যোগ দেবে বলে আশাবাদী গেরুয়াশিবির। ফলে ২২৮ আসনের মধ্যপ্রদেশ বিধানসভায় সরকার গড়তে তাদের অসুবিধা হবে না বলেই দাবি করছে গেরুয়া শিবির।