Asianet News BanglaAsianet News Bangla

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের গোয়া সফরের আগে ছেঁড়া হল পোস্টার-ব্যানার, বিজেপিকে কটাক্ষ তৃণমূলের

গোয়ার রাস্তা লাগানো তৃণমূল নেত্রীর ছবি দেওয়া ব্যানার ও হোর্ডিং ছেঁড়ার অভিযোগ উঠল। মঙ্গলবার গোটা বিষয়ের ছবি তুলে টুইটারে পোস্ট করেন তৃণমূল সাংসদ ডেরেক ও ব্রায়েন।

Allegations of tearing posters and hoardings of TMC before goa Visit of Mamata banerjee bpsb
Author
Kolkata, First Published Oct 26, 2021, 4:07 PM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

গোয়ায়(Goa) তৃণমূলের(TMC) মাটি শক্ত করতে ২৮শে অক্টোবর সে রাজ্যে সফরে(Goa Visit) যাচ্ছেন দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়(Mamata banerjee)। তবে তার আগেই গোয়ার রাস্তা লাগানো তৃণমূল নেত্রীর ছবি দেওয়া ব্যানার ও হোর্ডিং ছেঁড়ার (tearing posters and hoardings) অভিযোগ উঠল। মঙ্গলবার গোটা বিষয়ের ছবি তুলে টুইটারে পোস্ট করেন তৃণমূল সাংসদ ডেরেক ও ব্রায়েন। এরপরেই নিন্দার ঝড় ওঠে।  

দক্ষিণ পশ্চিমের রাজ্য গোয়াতে ২৮ অক্টোবর রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যাবেন বলে জানা গিয়েছে। অন্যদিকে আগেই কংগ্রেস ছেড়ে তৃণমূল যোগদান করেছিন গোয়ার প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তথা প্রবীন রাজনীতিবিদ লুইজিনহো ফালেইরো (Luizinho Faleiro)। তাঁকে ইতিমধ্যেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দলের সর্বভারতীয় সভাপতির পদে বসিয়েছেন। 

সূত্রের খবর বিধানসভা নির্বাচনে তাঁকে সামনে রেখেই ঘুঁটি সাজাতে চাইছে তৃণমূল। ঘাসফুলের এই শক্তিবৃদ্ধিতে  যথেষ্ট চিন্তুতি বিজেপি। কারণ তৃণমূল গোয়ার রাজনীতিতে প্রবেশের আগে বিধানসভা দখল অনেকটাই সহজ ছিল বিজেপির কাছে। কিন্তু বর্তমানে তৃণমূল বিজেপিকে কঠিন চ্যালেঞ্জের মুখে ফেলে দিয়েছে। অন্যদিকে গোয়ার ফরওয়ার্ড পার্টিও তৃণমূলের সঙ্গে হাত মেলাতে চাইছে বলে সূত্রের খবর। এই দলের নেতারা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রশংসাও শুরু করে দিয়েছেন। সব মিলিয়ে বিধানসভা ভোটের আগে গোয়াতে কিছুটা হলেও স্বস্তিতে রয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সফরের সময়ও গোয়ার ছবি আরও পরিষ্কার হবে বলেও রাজনৈতিক মহলের ধারনা। 

Bank holidays November 2021- নভেম্বরে ১৭ দিন বন্ধ থাকবে ব্যাঙ্ক, দেখে নিন বাংলায় কবে

এই পাঁচ বলিউড সেলিব্রিটির কেরিয়ার প্রায় নষ্ট করে দিয়েছিলেন সলমন খান

পিরিয়ডসের সময় এই নিয়মগুলো মানেন তো, জেনে রাখা উচিত পুরুষদেরও

এদিকে গোয়ার মাটিতে তৃণমূলের উত্থানে বিজেপি ভয় পেয়েছে বলেই হোর্ডিং পোস্টার ছিঁড়ে ফেলা হয়েছে, দাবি তৃণমূলের। পাশাপাশি চাপ বাড়াতে দুর্নীতির অভিযোগে গোয়ার মুখ্যমন্ত্রী প্রমোদ সবন্তের ইস্তফার দাবিও তুলেছে গোয়া তৃণমূল। এ জন্য ৭২ ঘণ্টার সময়সীমা বেঁধে দিয়েছে তারা। গোয়া তৃণমূলের অভিযোগ, দলকে ঠেকাতে সম্প্রতি গোপন বৈঠকে বসেছিলেন গোয়া বিজেপি-র কর্মকর্তারা। সেই গোপন বৈঠকে স্থির হয়েছে, মমতার মুখ দেওয়া যে সমস্ত ব্যানার ও পোস্টার গোয়া জুড়ে লাগানো হয়েছে, সব ছিঁড়ে দেওয়া হবে। তাই এই ধরণের ব্যর্থ আক্রমণ চালাচ্ছে গেরুয়া শিবির বলে দাবি ঘাসফুলের।  

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios