নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন বোঝাতে এক দিনের সফরে শহরে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। দুপুর এগারোটায় কলকাতা বিমান বন্দরে পা রাখবেন তিনি। দুপুরেই শহিদ মিনারের জনসভা থেকে অমিত শাহকে অভিনন্দন জানাবে রাজ্য বিজেপি। তবে এই সভা থেকেই গেরুয়া শিবির আসন্ন পুরসভা নির্বাচনের প্রচার শুরু করবে বলেই মনে করছে রাজনৈতিক মহল। আর জনসভা থেকেই দলীয় কর্মীদের উজ্জীবিত করাই অমিতের প্রধান লক্ষ্য হবে। দলীয় কর্মীদের নিয়ে বৈঠকও করবেন অমিত শাহ। আর সেই বৈঠকে উপস্থিত থাকতে পারেন বিজেপি সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা। 

আরও পড়ুনঃ এনেছেন অতিরিক্ত মালপত্র, বারাণসী বিমানবন্দরে আটকানো হল রাষ্ট্রপতিকে

সূত্রের খবর বিএসএফ-এর বিশেষ বিমানে  কলকাতায় আসবেন অমিত শাহ। কলকাতা বিমানবন্দর থেকে সড়কপথে যাবেন রাজারহাটে। সেখানে ন্যাশানাল সিকিউরিটি গার্ডের একটি ভবনের উদ্বোধন করবেন। রাজারহাট থেকেই সড়কপথে আসবেন শহিদ মিনারে। শহর ছাড়ার আগে অমিত শাহ কালীঘাটের মন্দিরে  দর্শনের জন্য যেতে পারেন বলেও সূত্রের খবর। জেট প্লাস ক্যাাটাগরির নিরাপত্তা পান কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। তাঁর নিরাপত্তার মূল দায়িত্বে সিআরপিএফ। তবে এদিন যাত্রাপথের দায়িত্ব সামলাবে কলকাতা ও বিধাননগর পুলিশ। রাত দশটা নাগাদ বিএসএফ-এর বিমানেই তিনি কলকাতা ছাড়বেন তিনি। 

আরও পড়ুনঃ দেবপ্রয়াগে খরস্রোতা নদীতে পা পিছলে গেল প্রধান বিচারপতির, দেখুন সেই ভয়ঙ্কর মুহুর্তের ভিডিও

শহিদ মিনারে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহরে সভা ঘিরে যথেষ্ট উত্তেজনা রয়েছে বিজেপি কর্মীদের মধ্যে। দুটি মঞ্চও তৈরি হয়েছে। মূল মঞ্চে বসবেন অমিত শাহ, বিজেপির রাজ্যসভাপতি দিলীপ ঘোষসহ রাজ্য বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্ব। পাশের মঞ্চে বসবেন দলের সাংসদ, বিধায়ক, কাউন্সিলররা। শহিদ মিনারের সভায় ভিড় বাড়াতে ইতিমধ্যেই বড়বাজার ও যদুবাবুর বাজারের দোকান মালিকদের কাছে আবেদন জানানো হয়েছে। জনসভার জন্য শহরের তিন প্রান্ত থেকে মিছিল আসবে। হাওড়া, শিয়ালদা স্টেশন ও মুরলীধর লেন থেকে ধর্মতলার দিকে বড়মাপের মিছিল আসবে বলে মনে করা হচ্ছে। তাই রবিবার ছুটির দিন হলেও দুপুরের দিকে কলকাতার বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ রাস্তায় যানজটের আশঙ্কা করা হচ্ছে। 

আরও পড়ুনঃ দোকানপাট খুলছে, দিল্লিতে পরিস্থিতি স্বাভাবিকের দিকে, ১২৩ জনের নামে এফআইআর

সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন নিয়ে কিছুটা হলেও চাপের মুখে বিজেপি। এই রাজ্যেও সেই ছবিটা খুব একটা  বদলায়নি। লোকসভা নির্বাচনে মোদি হাওয়ায় ভর করে বিজেপি ১৮টি আসন জয় করেছিল। কিন্তু তারপর বিধানসভা উপনির্বাচনে তেমন সাফল্য আর্জন করতে পারেনি গেরুয়া শিবির। এই পরিস্থিতিতে আগামী এপ্রিলেই রাজ্যে পুরসভা নির্বাচন। তাই তার আগে শহিদ মিনারের সভা থেকে অমিত শাহ রাজ্যের বিজেপি নেতা কর্মীদের উজ্জীবিত করবেন বলেই মনে করা হচ্ছে। তবে বিরোধীরা নিজের অবস্থান বজায় রাখবে। বেশ কয়েকটা এলায় কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কনভয় বিক্ষোভের মুখে পড়তে পারে বলেও আশঙ্কা করা হচ্ছে।