সেনা নিয়োগে জালিয়াতির অভিযোগে দুই প্রাক্তন সেনা আধিকারিক সহ তিন জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। অভিযুক্ত আলি আক্তার ও মহেন্দ্র সোনাভান দুজনেই সেনা বাহিনীর প্রাক্তন সদস্য ছিল। তৃতীয় জন আজাদ খান। 

ক্রাইম ব্রাঞ্চ ও মিলিটারি ইনটেলিজেন্স অব ইন্ডিয়ার যৌথ উদ্যোগে একটি তল্লাশি অভিযান চালান হয়। তাতে উঠে এসেছে ভয়ঙ্কর এক তথ্য। সূত্রের খবর প্রার্থী পিছু ৪-৫ লক্ষ টাকার বিনিময় সেনা পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁস করছে। বেশ কয়েকদিন ধরেই সক্রিয় ছিল এই ব়্যাকেট। বহু পরীক্ষার কাছ থেকে বেআইনিভাবে টাকা আদায় করত বলেও সূত্রের খবর। 


দলটি মহারাষ্ট্রের বিভিন্ন স্থানে সম্মিলিতভাবে তল্লাশি চালায়। রবিবার অনুষ্ঠিত হওয়া সেনা বহিনীর একটি পরীক্ষার প্রশ্নপত্রও উদ্ধার করেছে তদন্তকারীরা। তিন অভিযুক্ত পুনে, কোলাপুর, সাতারা, সাঙ্গালি ও কর্ণাটকের বেলগাঁও সব বেশ কয়েকটি এলাকার প্রার্থীদের কাছে বেআইনিভাবে প্রশ্নপত্র বিক্রি করেছিল বলেও জানান হয়েছে। ফাঁস হওয়া প্রশ্নের অনুলিপি সন্ধানের পর সেনা কর্তৃপক্ষ দ্রুততার সঙ্গে তদন্তে নামে। বেশ কয়েকটি পরীক্ষা বাতিল করা হতে পারে বলেও অভিযোগ করা হয়েছে।