দিল্লি হিংসার বলি হয়েছিলেন গোয়েন্দা আধিকারিক অঙ্কিত শর্মা। গত সপ্তাহে উত্তর-পূর্ব দিল্লির জাফরাবাদে নর্দমার পাশ থেকে  উদ্ধার হয়েছিল তাঁর দেহ। ৪০০ বেশি আঘাতের দাগ ছিল অঙ্কিতেকর গোটা শরীরে। এই ঘটনায় অঙ্কিতের বাবা রবীন্দ্র শর্মা আম আদমি পার্টির দিকেই অভিযোগের আঙ্গুল তুলেছিলেন। রবীন্দ্র শর্মা নিজেও প্রাক্তন আধিকারিক। তাঁর অভিযোগ ছিল আপ নেতা তাহির হোসেনের অনুগামীরাই ছেলে মেরেছে। ঘটনার পর পরিস্থিতি সামলাতে দল থেকে তাহিরকে বরখাস্ত করা হয়। দলের কোনও সদস্য দিল্লির হিংসায় জড়িত থাকলে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে সাংবাদিক সম্মেলনে ঘোষণা করেন কেজরিওয়াল। এর মাঝেই এবার অঙ্কিত শর্মার পরিবারের জন্য এক কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ ঘোষণা করলেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল।

আরও পড়ুন: করোনা নিয়ে নাজেহাল বিশ্ব, চটজলদি সমাধান দিলেন যোগী আদিত্যনাথ

২৬ বছরের অঙ্কতি আইবির সিকিউরিটি অ্যাসিস্টেন্ট হিসাবে কাজ করতেন। গত মঙ্গলবার থেকে নিখোঁজ হন অঙ্কিত। পরিবারের দাবি বাড়ি থেকে অফিসে যাওয়ার পথে উন্মত্ত জনতা তাঁকে ছিনিয়ে নিয়ে যায়। পরের দিন বুধবার ড্রেনের পাশ থেকে উদ্ধার হয় অঙ্কিতের দেহ। শরীরে ছিল একাধিক আঘাতের চিহ্ন। তাঁর পরিবারের দাবি মারধরের পর গুলি করে মারা হয়েছে আইবি অফিসারকে। এই ঘটনায় ইতিমধ্যে তাহির হোসেনের বিরুদ্ধে খুনের মামলা রুজু করেছে পুলিশ। 

আরও পড়ুন: দলজিতের সঙ্গে তাজ দর্শন থেকে সাইকেলে চড়ে ভ্রমণ, ভারতীয়দের সৃজনশীলতায় মুগ্ধ ইভাঙ্কা

সোমবার সাংবাদিক বৈঠক ডাকেন কেজরিওয়াল। সেখানেই গোয়েন্দা অফিসার অঙ্কিত শর্মার পরিবারের জন্য এক কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ ঘোষণা করেন তিনি। পাশাপাশি মৃত গোয়েন্দা আধিকারিকের পরিবারের একজনকে দিল্লি অসরকারে চাকরি দেওয়ার কথাও জানান তিনি।

এর আগে দিল্লি পুলিশের নিহত কনস্টেবল রতন লালের পরিবারের জন্যও এক কোটি টাকার ক্ষতিপূরণ ঘোষণা করেছিল আম আদমি পার্টির সরকার। দিল্লির হিংসার বলি হয়েছিলেন রতন লালও।