সমাজ এখন আগের থেকে অনেকটা উন্নত হওয়া সত্ত্বেও এখনও অনেক মেয়েরাই পড়াশোনার সুযোগ পায়না। অধিকাংশ মেয়েদেরই বিয়ে হয়ে যায় স্কুলের গোন্ডি পেড়তে না পেড়তেই। অর্থিক দিক থেকে পিছিয়ে পড়া মানুষদের মধ্যেই এই প্রবণতা সব থেকে বেশি লক্ষ্য করা যায়। এমনকি অনেক মেয়েরা চেয়েও পড়াশোনা করারও সুযোগ পায়না, আর সেই কারণেই একের পর এক উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে সরকারের পক্ষ থেকে। কেন্দ্রীয় সরকারের 'বেটি বাঁচাও বেটি পড়াও' আবার পশ্চিমবঙ্গ সরকারের কণ্যাশ্রীও মেয়েদের কথা ভেবেই তৈরি হয়েছে। এবার তেমনই এক উদ্যোগ নিতে চলেছে আসাম সরকার। 

মেয়েদের স্কুল মুখি করতেই আসাম সরকার খুব শীঘ্রই স্কুল ও কলেজের ছাত্রীদের জন্য এক বিশেষ উদ্যোগ নিতে চলেছে। মেয়েদের স্কুল মুখি করতেই আসাম সরকারের এই উদ্যোগ। শিক্ষামন্ত্রী হিমন্ত বিশ্ব শর্মা রবিবার শিবসাগরে ঘোষনা করেন প্রতিদিন স্কুল করলে ছাত্রীরা ১০০ টাকা করে পাবে।

আরও পড়ুন- ঘরোয়া পদ্ধতিতে দৃষ্টিশক্তি বাড়িয়ে তুলতে অভ্যাস করুন এই ৫ টি ব্যায়াম

আরও পড়ুন- শীতকাল মানেই পিকনিক, শীতের মরসুমে পিকনিক সারুন এই ৫ জায়গায়

এছাড়াও তিনি সেখানে জানান জানুয়ারির শেষে স্নাতক স্তরের ছাত্রীদের ব্যাঙ্কে ১৫০০ টাকা এবং স্নাতকোত্তর ছাত্রীদের ২০০০ টাকা করে দেওয়া হবে। যাতে তারা বই কেনার জন্য টাকা খরচ করতে পারে। সামনেই বিধানসভা ভোট আর তার আগেই এই উদ্যোগ নিতে চলেছে আসাম সরকার। শিক্ষামন্ত্রী জানিয়েছেন ২০২০ সালেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল তবে করোনার জেরে তা আর সম্ভব হয়ে ওঠেনি। তাই জানুয়ারি থেকেই চালু হয়ে যাতে পারে এই ব্যবস্থা। শুধু কলেজই নয় স্কুলের ছাত্রীদের জন্যেও এই ব্যবস্থা থাকছে বলে তিনি জানিয়েছেন। এছাড়াও গত বছর যারা ফার্স্ট ডিভিসানে উচ্চ মাধ্যমিক পাশ করেছে তাদের সকলকেই একটি করে মোটর বাইক দেওয়া হয়েছে। এবছরেও ফেব্রুয়ারি মাসে ১৫০০০ মেয়ের হাতে স্কুটার তুলে দেওয়া হবে বলে তিনি জানিয়েছেন।