মাস্ক পরেও হতে পারেন করোনার মুখোমুখি। বিপদ থেকে বাঁচতে এড়িয়ে চলুন বাস-ট্রেনের মতো গণ পরিবহণ। সোমবার দেশের করোনা পরিস্থিতি নিয়ে বৈঠকের পর এমনই পরামর্শ দিয়েছে মন্ত্রীদের একাংশ। নয়া নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, ভাইরাসের প্রকোপ থেকে বাঁচতে অবিলম্বে বেসরকারি ক্ষেত্রের কর্মীদের বাড়িতে বসে কাজ করা উচিত। খুব প্রয়োজন ছাড়া বাইরে ঘোরাঘুরি ঠিক নয়।

জানালা খোলা রাখলে ভাইরাস বেরিয়ে যাবে, করোনা রুখতে দিদির নিদান

দেশের বর্তমান অবস্থা বলছে, নিত্যদিন ভারতে বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। ইতিমধ্য়েই যা ১২০ ছুঁয়েছে। বেগতিক দেখে বেশি জমায়েতের জায়গায় যেতে বারণ করছে 
কেন্দ্রীয় সরকার। শপিং মল, জিম, সুইমিং পুলেও যেতে না করছে স্বাস্থ্য় মন্ত্রক। যদিও কেন্দ্রের তরফে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, এই অ্যাডভাইসরি বাধ্য়তামূলক নয়। সব রাজ্য এই পরামর্শ মানতে বাধ্য নয়।

করোনার উপসর্গ জেনেও বেলেঘাটা আইডি থেকে ফেরার মহিলা, থানায় খবর

করোনা রুখতে কড়া পদক্ষেপ নিয়েছেন দিল্লির মুখ্য়মন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল । রাজধানীতে ৫০ জনের বেশি জমায়েতে নিষধাজ্ঞা জারি করেছেন তিনি। করোনা যাতে না ছড়ায় তাই শাহিনবাগ আন্দোলন তুলে নিতে আবেদন করেছেন দিল্লির মুখ্য়মন্ত্রী। যদিও আন্দোলনকারীরা জানিয়েছেন, শাহিনববাগের আন্দোলন থেকে তারা সরছেন না। তবে এতকিছুর মধ্য়েও বিয়েবাড়ির জন্য় ছাড় দিয়েছেন কেজরিওয়াল।  

করোনায় আক্রান্ত গ্রাহক, আতঙ্কে বিছানা বয়কটে নিষিদ্ধপল্লীর মেয়েরা

এদিকে করোনা মোকাবিলায় এদিনই মহামারী আইন লাগু করেছেন মুখ্য়মন্ত্রী মমতা বন্দ্য়োপাধ্যায়। পশ্চিমবঙ্গেও জারি হয়েছে একাধিক নির্দেশিকা। বাংলায় এখনও পর্যন্ত কারও শরীরেরই করোনা ভাইরাসের সন্ধান মেলেনি। তবে করোনা সন্দেহে বহু মানুষ হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন।  সোমবার নবান্নে করোনা নিয়ে বৈঠকের পর রাজ্য়ের মুখ্যমন্ত্রী  মমতা বন্দ্য়োপাধ্য়ায় জানিয়েছেন, করোনা মোকাবিলায় ২০০ কোটি টাকা তহবিল তৈরি করা হয়েছে। যার মধ্য়ে থাকছে ১০ লক্ষ স্বাস্থ্যকর্মীর জন্য ৫ লক্ষ টাকা করে স্বাস্থ্যবিমা করার সুযোগ। এছাড়াও এই তহবিলের অর্থে স্বাস্থ্যকর্মীদের জন্য ২ লক্ষ সংক্রমণ নিরোধক পোশাক, ২ লক্ষ এন৯৫ মাস্ক, ৩০০ ভেন্টিলেশন কেনার বন্দোবস্ত করা হয়েছে বলে মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন।

ইতিমধ্য়েই করোনার সংক্রমণ রুখতে ৩১ মার্চ পর্যন্ত রাজ্যের সরকারি, বেসরকারি স্কুল-কলেজ ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে। এবার সেই ছুটি ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত বাড়িয়ে দেওয়ার ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী। বন্ধ থাকবে আইসিডিএস সেন্টার, সিনেমা হল, শুটিংও। মুখ্য়মন্ত্রী যাবতীয় রিয়েলিটি শো বন্ধ রাখার অনুরোধ জানিয়েছেন। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য় মন্ত্রক থেকে ইতিমধ্য়েই রাজ্য় এবং সংস্থাকে আগাম করোনা ভাইরাস নিয়ে আগেই সতর্কতা নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। স্টেডিয়াম, থিয়েটার, সিনেমা হল সহ সব জায়গাতেই কোনওরকম জমায়েতের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। তাই করোনা মোকাবিলায় কোনরকমও ঝুঁকি নিতে রাজি নয় রাজ্য় সরকার।

এদিকে কলকাতায় বন্ধ করা হয়েছে জাদুঘর, ভিক্টোরিয়া, ন্যাশনাল লাইব্রেরি, বিড়লা তারামণ্ডল, সায়েন্স সিটি। চারিদিকে এই আতঙ্কের বাতাবরণে কেন্দ্রের এই নির্দেশিকা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।