আগে থেকেই ঠিক ছিল রামমন্দির ভূমিপুজোর দিন দীপাবলী উৎসব হবে অযোধ্যায়। সেইমত বুধবার সন্ধ্য়াবেলা রঙিন হয়ে ওঠে গোটা অযোধ্যা জেলা। স্থানীয় বাসিন্দারা আলো জ্বালিয়ে আর বাজি পুড়িয়ে রামমন্দিরের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপনের দিন উদযাপন করে। তবে এদিনই প্রথম নয় মঙ্গলবার থেকেই উৎসবে মেতেছিলেন অযোধ্যাবাসী। এই অনুষ্ঠানকে তাঁরা তুলনা করেছেন ছোট দীপাবলির অনুষ্ঠানের সঙ্গে। 

ভারতীয় লোকগাথা অনুযায়ী বনবাস কাটিয়ে রাক্ষসরাজ রাবনকে বধের পর শ্রীরাম যখন অযোধ্য়ায় ফিরেছিলেন সেই দিনটিকে স্মরণীয় করে রাখতে দীপাবলী উৎসবে সামিল হয়েছিল গোটা আযোধ্যা। পরে গোটা দেশই সামিল হয় দীপাবলির উৎসবে। ভক্তদের কথায় দীর্ঘদিন তাঁবুতে থাকার পর এদিন রামলালা অর্থাৎ ছোট রাম তাঁর জন্মস্থানে ফিরতে পারবেন। তাই তাঁরা এই দিনটিকে বিশেষভাবে উধযাপন করছেন। 

এদিনই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর উপস্থিতিতে রামমন্দিরের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন হয়। বর্ণাঢ্য এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন শতাধিক অতিথি। রুপোর ইট স্থাপনের মধ্যে দিয়েই রামমন্দির নির্মান কাজ শুরু হয়। প্রধানমন্ত্রী জানিয়েছেন আগামী দিনে বিশাল মন্দির তৈরি হবে। 

অন্যদিকে রাম জন্মভূমি অনুষ্ঠানে উৎসবমুখর ছিল নিউ ইয়র্কের আইকনিক টাইমস স্কোয়ারও। সেখানেও বিলবোর্ড অবতীর্ণ হন ভবগান শ্রী রাম। মন্দিরের একটি ছবিও প্রদর্শিত হয় টাইমস স্কোয়ারের বিলবোর্ডে।