শুক্রবার জিএসটি কাউন্সিলের বৈঠকের পর কর্পোরেট ট্যাক্স অনেকটা কমিয়ে ২২ শতাংশে নামিয়ে আনার কথা ঘোষণা করেছেন অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন। আর তাতেই দারুণ উৎসাহ দেখা গেল লগ্নিকারীদের মধ্য়ে। এই জ্বালানী পেয়ে বলা যেতে পারে চন্দ্রযানের থেকেও দ্রুত উঠল ভারতীয় স্টকমার্কেটগুলির সূচক।

শুক্রবার, বাজার বন্ধের সময় বম্বে স্টক এক্সচেঞ্জ-এর সেনসেক্স ছিল ৩৮,০১৪.৬২ পয়েন্টে। যা আগের দিনের থেকে ১৯২১.১৫ পয়েন্ট বা ৫.৩২ শতাংশ বেশি। আর নিফটি-র সূচক ৫৬০.৪০ পয়েন্ট বা ৫.৩২ল শতাংশ বেড়ে ছিল ১১,২৭৪.২০ পয়েন্টে। বিএসই মিডক্যাপ সূচকের বৃদ্ধি হয় ৬.২৮ শতাংশ ও স্মলক্যাপ সূচক ৩.৯৪ শতাংশ।

বিএসই-তে আর্থিক লগ্নি বৃদ্ধি হয় ৭ ট্রিলিয়ন টাকার। সব মিলিয়ে বিএসই-তে সব সংস্থার মিলিত লগ্নি পৌঁছায়  ১৪৫ ট্রিলিয়ন টাকায়। সবচেয়ে বেশি বৃদ্ধি লক্ষ্য করা গিয়েছে অটো সংস্থাগুলির স্টকের ক্ষেত্রে। হিরো মোটোকর্পের বৃদ্ধি হয় ১২.৫২ শতাংশ ও মারুতির ১০.৮৯ শতাংশ। এমনকী বাজাজ ফিনান্স, এসবিআই, এইচডিএফসি ব্যাঙ্ক এবং আইসিআইসিআই ব্যাঙ্কের মতো ব্যাঙ্কও অন্যান্য আর্থিক সংস্থাগুলিও শুক্রবার ৭-১০ শতাংশ বৃদ্ধি হয়েছে। তবে ইনফোসিস, টিসিএস, টেক মাহিন্দার মতো তথ্য-প্রযুক্তি সংস্থাগুলির কিন্তু ক্ষতির মুখই দেখতে হয়েছে।    

এর আগে শেষবার বিএসই সেনসেক্সে একদিনে এমন বৃদ্ধি দেখা গিয়েছিল ২০১৪ সালের ১৬ মে। একদিনে সূচক উঠেছিল ৬.১৫ শতাংশ। সেই সময় সদ্য সদ্য নির্বাচনে বিশাল জয় পেয়ে প্রথমবারের জন্য প্রধানমন্ত্রী হয়েছিলেন নরেন্দ্র মোদী। আর নিফটিতেও ওই একই দিনে শতাংশের হারে সবচেয়ে বেশি সূচক বৃদ্ধি দেখা গিয়েছিল। একদিনে বৃদ্ধি ছিল ৫.৩ শতাংশ। শুক্রবার, ২০ সেপ্টেম্বর দেশের প্রথম মহিলা অর্থমন্ত্রীর এক ঘোষণাতেই সেইসব রেকর্ড ভেঙে গেল।