বৃহস্পতিবার সকালে আগ্রার তাজমহলে বোমের আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। মুহূর্তে ঘটনাস্থলে পৌঁছে যায় পুলিশ। পাশাপাশি পৌঁছে যায় বোম নিস্ক্রিয় কর্মীরাও। এদিন সকাল সাড়ে নটা নাগাত পুলিশের কাছে একটি ফোন পৌঁছায়, যেখানে বলা হয়, বোমা রাখা রয়েছে আগ্রার তাজমহলে। মুহূর্তে ঘটনাস্থলে পৌঁছে যায় পুলিশ। তখন সেখানে পর্যটক ঠেসাঠেসি। যার ফলে তড়িঘড়ি স্থানটি খালি করা হয়। 

দীর্ঘ ছয় মাস বন্ধ থাকার পর খোলা হয়েছে তাজজমহলের দরজা। প্রতিদিন নিয়ম করে হাজার হাজার পর্যটকেরা এখানে এসে থাকেন। বৃহস্পতিবারও তার ব্যতিক্রম ঘটেনি। যার ফলে এদিন সকাল থেকেই ভিড় থাকে এই স্থানে। পুলিশ সূত্রে খবর এদিন আলিগর থেকে একটি ফোন আসাতেই নড়ে চড়ে বসে পুলিশেরা। পরবর্তীতে সূত্রের খবর অনুযায়ী জানা যায় যে ফিরোজাবাদ থেকে এসেছে এই ফোনটি। 

 

ঘটনাস্থলে পুলিশ ফোর্ট নিয়ে পৌঁছে যাওয়ার পরই সাবধানতা অবলম্বন করে খালি করতে শুরু করা হয় স্থানটি। পর্যটকদের দূরে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়। বন্ধ করে দেওয়া হয় মূল দরজা। পাশাপাশি বন্ধ করা হয় সবকটি গেট। ভেতরে চলতে থাকে তল্লাশি। এখনও পর্যন্ত পাওয়া খবর অনুযায়ী বোম উদ্ধার হয়নি। ফোনটি কোনও বিভ্রান্তি সৃষ্টি করার জন্য করা উড়ো ফোন কি না, তাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে।