দেশজুড়ে সাড়ম্বরে রথযাত্রা পালিত হওয়ার পাশাপাশি ভক্তদের সমাগমে জমে উঠেছে পুরী। অবশেষে হল প্রতীক্ষার অবসান। পুরীর রথের রশিতে পড়ল টান। ইতিমধ্যেই সকাল থেকে কয়েক হাজার তীর্থযাত্রীদের সমাগম হয়েছে পূর্ণভূমি পুরী। সকাল থেকে পালা করে করে দফায় দফায় একাধিক আচার-অনুষ্ঠান পালন হয়ে যাওয়ার পর  জগন্নাথ, বলভদ্র ও শুভদ্রার রথ চলতে শুরু করেছে।

আজ সকাল থেকেই হাজার হাজার ভক্তের  সমাগম হয়েছে এই পুরীর বাদাদন্দ বা গ্র্যান্ডরোডে। সকাল থেকেই হরিবোল ধ্বনিতে মুখরিত হয়ে উঠেছিল চারিদিক। সেই সঙ্গে 'জয় জগন্নাথ' ধ্বনি বাতাসে এক বিশেষ মাত্রা যোগ করেছিল। প্রায় কয়েশো বছরের সুপ্রাচীন এই মন্দিরের সঙ্গে জড়িয়ে রয়েছে সেখানকার রাজবংশের ইতিহাস। সেই ইতিহাসও বহু বছরের ঐতিহ্যমণ্ডিত এবং সেই ইতিহাস পুরীর মানুষের কাছে এখনও প্রচন্ড গর্বের। ভারত স্বাধীন হওয়ার পর পুরীতে রাজার রাজত্বের অবসান হলেও এখনও রীতি মেনে সোনার ঝাঁটা দিয়ে রাস্তা পরিষ্কার করে দেন পুরীর রাজা। 

আরও পড়ুন- রীতি-নীতি ও ঐতিহ্য মেনে আজ পুরীতে রথযাত্রা উৎসব

অগণিত ভক্তের সমাগমে জগন্নাথ, বলরাম এবং শুভদ্রার রথ এগিয়ে চলেছ। প্রতি বছরের মতো এবারেও ভক্তদের সমাগমে মন্ত্র উচ্চারণে, একটা দৈবিক আবহ তৈরি করে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে তিনটি রথ।