ভিতরে বাইরে প্রবল বিক্ষোভের মধ্যেই লোকসভায় পেশ হল নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল। তার আগে থেকেই বিরোধী বিক্ষোভের ঝড় উঠল সংসদ ভবনের বাইরে। এআইডিইউএফ-র মতো উত্তর পূর্বাঞ্চল দলের পক্ষ থেকে যেমন সংসদের বাইরে বিক্ষোভ দেখানো হয়, সেরকমই বিক্ষোভ দেখায় ইন্ডিয়ান ইউনিয়ন মুসলিম লিগ- এর সদস্যরাও। অন্যদিকে তৃণমূল কংগ্রেস, সমাজবাদী পার্টির মতো বিরোধী দলগুলি জানিয়ে দিয়েছে, যে কোবও মূল্যে তারা এই বিলের বিরোধিতা করবে। বিলের প্রবল বিরোধিতা করেছেন লোকসভায় কংগ্রেস দলনেতা অধীররঞ্জন চৌধুরীও। 

নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলের বিরোধিতায় সবথেকে বেশি সরব হয়েছে উত্তর পূর্বাঞ্চলের দলগুলি। আবার তৃণমূল সাংসদ সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়ের অভিযোগ, এই বিল জাতীয় সংহতির বিরোধী। সংসদের ভিতরে কংগ্রেসের অধীররঞ্জন চৌধুরী দাবি করেন, 'ধর্মের ভিত্তিতে নাগরিকত্ব দেওয়া উচিত নয়। কারণ আমরা ধর্মনিরপেক্ষ রাষ্ট্রে বাস করি।'

বিরোধীদের হইহট্টগোলের মধ্যেই অবশ্য স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ দাবি করেন, বিল নিয়ে বিরোধীদের প্রতিটি প্রশ্নের উত্তর দেবেন তিনি। তাঁর বক্তব্যের পাল্টা যুক্তিও তুলে ধরতে পারবেন বিরোধীরা। ধর্মের ভিত্তিতে ভেদাভেদ করা হবে না বলেও দাবি করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। তাঁর আরও দাবি, এই বিল মুসলিমদের বিরুদ্ধে নয়। কটাক্ষ করে অমিত শাহ বলেন, বিরোধীরা যেন অধিবেশন কক্ষ ত্যাগ করে বেরিয়ে না যান।