অহিংসাই বৈষ্ণবদের আসল পরিচয়। কিন্তু তামিলনাড়ুর কাঞ্চিপুরমের বরধরজা পেরুমল মন্দিরের মধ্যেই তীব্র সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ল ভেদাকালাই ও থেনকালাই - এই দুই দুই বৈষ্ণব সম্প্রদায়ের সদস্যরা। জানা গিয়েছে প্রবধম কীর্ত্তন গাওয়া নিয়েই দুই সম্প্রদায় বিবাদে জড়িয়ে পড়ে।

বুধবার ছিল দক্ষিণ ভারতের বৈষ্ণব সাধক ভুথথ আজওয়ার-এর জন্মদিবস। সেই উপলক্ষে এদিন কাঞ্চিপুরমের বরধরজা পেরুমাল মন্দিরে এক বিশেষ পূজা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছিল। সেখানে প্রথম কীর্তন গাওয়া শুরু করেছিলেন থেনকালাই সম্প্রদায়ের সদস্যরা।

এই নিয়ে আপত্তি তোলেন ভেদাকালাই-এর সদস্যরা। তাঁরা দাবি করেন, আদালতের নিষেধাজ্ঞা আছে তাই থেনকালাই বৈষ্ণবরা কীর্ত্তন গাইতে পারবেন না। এই নিয়েই বিতর্কের সূবত্রপাত ঘটে। এর থেকেই দুই পক্ষে তুমুল দ্বন্দ্ব বেধে যায়। মন্দিরে মধ্যেই দুই সম্রপ্রদায়ের সদস্যরা নিজেদের মধ্যে মারামারিতে জড়িয়ে পড়েন। একে কেন্দ্র করে এলাকায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে।

প্রায় ২ ঘন্টা ধরে এই তীব্র গোলমাল চলার পর শেষ পর্যন্ত পুলিশকে হস্তক্ষেপ করতে হয়। তাতেও ঝামেলা থামেনি। একটা পর্যায়ে দুই পক্ষই নিজেদের মধ্যে প্রতিযোগিতা করে  কীর্ত্তন গাইতে শুরু করেন। পুলিশ জানিয়েছে, তাঁরা সময়মতো এসে পড়াতেই অবস্থা হাতের বাইরে চলে যায়নি।  

এর আগে গত মে মাসেও এই প্রবন্ধম গাওয়া নিয়েই দুই পক্ষ সংঘর্ষে জড়িয়েছিল। প্রতিবার একই ঘটনা ঘটায় ভক্তরা যথেষ্ট উদ্বিগ্ন।