গত ২৪ ফেব্রুয়ারি গুজরাতের আহমেদাবাদে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে নাগরিক সংবর্ধনা দিতে 'নমস্তে ট্রাম্প' অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়েছিল। বুধবার, কংগ্রেসের গুজরাত শাখা অভিযোগ করেছে, ওই অনুষ্ঠানই সেই রাজ্যে করোনভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার জন্য দায়ী। প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অমিত চাভদা বলেছেন, তাঁর দল এ বিষয়ে এক বিশেষ তদন্তকারী দলের (এসআইটি) মাধ্যমে একটি স্বাধীন তদন্ত চায়, এবং শিগগিরই গুজরাট হাইকোর্টের কাছে সরকারের 'অপরাধমূলক গাফিলতি'-র বিরুদ্ধে মামলা করার আবেদন করা হবে। বিজেপি-র বক্তব্য, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডাব্লুএইচও) কোভিড-১৯ রোগকে বিশ্বব্যাপী মহামারী হিসাবে ঘোষণা করার আগেই এই অনুষ্ঠানটি সংগঠিত হয়েছিল, এবং এই ঘটনার প্রায় এক মাস পর রাজ্যের প্রথম করোনভাইরাস মামলার খবর পাওয়া গিয়েছিল।

এদিন এক ভিডিও বার্তায় চাভদা বলেছেন, 'জানুয়ারিতেই, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা স্পষ্টভাবে বলেছিল করোনভাইরাস এক ব্যক্তি থেকে অন্য ব্যক্তিতে ছড়িয়ে পড়ে। সমস্ত দেশকে বৃহৎ সমাবেশের আয়োজন থেকে বিরত থাকতে বলেছিল। এই ধরনের সতর্কতা সত্ত্বেও, রাজনৈতিক লাভের জন্য 'নমস্তে ট্রাম্প' অনুষ্ঠানের পরিকল্পনা করা হয়েছিল এবং গুজরাট সরকারও তার অনুমতি দিয়েছে'।

তাঁর আরও অভিযোগ, ট্রাম্পের সফরের আগে হাজার হাজার বিদেশি আহমেদাবাদে এসেছিল। আর তাদের মাধ্যমেই গুজরাতে প্রবেশ করেছিল করোনভাইরাস। তিনি বলেন, 'নেতাদের শুভেচ্ছা জানাতে লোকজনকে কাঁধে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে দাঁড়াতে বলা হয়েছিল। লক্ষ লক্ষ লোককে বাসে করে স্টেডিয়ামে নিয়ে আসা হয়েছিল। এভাবেই ভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছিল। এই ঘটনা শুধু ভুল নয়, অপরাধমূলক গাফিলতি।'

করোনা-র সঙ্গে জুটল রহস্যময় প্রদাহজনিত সিন্ড্রোম, ১৫ শিশুর অবস্থা গুরুতর

কোভিড সংকট কাটাতে বাগানে হাঁটছেন শতায়ু বৃদ্ধ, তাতেই তহবিল উঠল ৬০ লক্ষ টাকার

১২ কোটিরও বেশি মানুষ কাজ হারালেন ৪০ দিনে, লকডাউন থাবা বসাতে শুরু করল চাকরিতে

তবে গুজরাটের বিজেপির মুখপাত্র প্রশান্ত ভালা এই অভিযোগকে ভিত্তিহীন বলে অভিহিত করেছেন। তিনি বলেন, 'চাভদা-কে বুঝতে হবে ট্রাম্প যে কোনও দেশ সফর করার আগে, মার্কিন দল একটি ভাইরাল সংক্রমণের মতো সুরক্ষা এবং স্বাস্থ্য সম্পর্কিত ঝুঁকি আছে কি নেই তা নিশ্চিত করার জন্য আগেভাগেই সেই অঞ্চলের নিরীক্ষণ করে। তাদের ছাড়পত্র ছাড়া ট্রাম্প কখনই কোনও দেশ সফর করেন না। আর নমস্তে ট্যাম্প' ইভেন্টটি অনুষ্ঠিত হওয়ার সময় করোনাভাইরাসকে বিশ্বব্যাপী মহামারী হিসাবে ঘোষণা করা হয়নি।

বুধবার রাত পর্যন্ত গুজরাতে কোভিড-১৯ রোগীর সংখ্যা ৬২৪৫ এবং মৃত্যু হয়েছে ৩৬৮ জনের।