সাংসদ পদ হারানোর পর সরকারি বাংলো খালি করতে হবে রাহুল গান্ধীকে, নোটিশ পাঠাল লোকসভা কমিটি

| Mar 27 2023, 09:26 PM IST

rahul

সংক্ষিপ্ত

রাহুল গান্ধী ২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনে আমেঠি এবং ওয়ানাড থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিলেন। তিনি আমেঠি থেকে পরাজিত হন এবং ওয়েনাড থেকে জিতেছিলেন।

লোকসভা সাংসদ হিসাবে লোকসভা সচিবালয় থেকে অযোগ্য ঘোষণা করা রাহুল গান্ধী এখন সরকারি বাংলোর বিষয়ে ধাক্কা খেয়েছে। রাহুলকে এখন এক মাসের মধ্যে তার বাংলো খালি করতে হবে। সংসদের হাউজিং কমিটি নিয়ম অনুযায়ী নোটিশ পাঠিয়ে রাহুলকে বাংলো খালি করার নির্দেশ দিয়েছে। রাহুল ২০০৪ সালে সাংসদ হওয়ার পর হাউজিং কমিটি একটি সরকারি বাংলো বরাদ্দ করেছিল। সেই থেকে রাহুল গান্ধী একই সাংসদের বাসভবনে থাকতেন কিন্তু এখন তাকে এই বাংলোটি খালি করতে হবে।

রাহুল গান্ধী ২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনে আমেঠি এবং ওয়ানাড থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিলেন। তিনি আমেঠি থেকে পরাজিত হন এবং ওয়েনাড থেকে জিতেছিলেন। এমতাবস্থায় ওই সময় তার এমপি পদ অক্ষত ছিল। চার বছরের পুরনো মোদী পদবি মামলায় দোষী সাব্যস্ত হওয়ার পরে, সুরাট আদালত তাকে দুই বছরের কারাদণ্ড দেয়, যার কারণে রাহুল গান্ধী নিয়ম অনুসারে এমপি পদের জন্য অযোগ্য হয়ে পড়েন।

লোকসভার হাউস কমিটির বিজ্ঞপ্তি অনুসারে, রাহুল গান্ধী ১২ তুঘলক লেনের একটি সরকারি বাংলোতে বসবাস করছেন। রাহুল গান্ধীকে ২২ এপ্রিলের মধ্যে তার সরকারী বাসভবন খালি করতে হবে। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, অযোগ্য ঘোষণার এক মাসের মধ্যে রাহুল গান্ধীকে তার সরকারি বাসভবন খালি করতে হবে।

কেন গেল রাহুলের সাংসদ পদ

উল্লেখ্য, সম্প্রতি রাহুল গান্ধীর সংসদ সদস্যপদ বাতিল করা হয়েছে। ২০১৯ সালের মানহানির মামলায় সুরাটের একটি আদালত তাকে দোষী সাব্যস্ত করেছিল। লোকসভা সচিবালয় তাকে অযোগ্য ঘোষণা করে এবং তার সংসদ সদস্যপদ বাতিল করা হয়। ২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনে কর্ণাটকের একটি জনসভায় প্রধানমন্ত্রী 'মোদী' উপাধি নিয়ে মন্তব্য করার জন্য রাহুলকে দুই বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছিল।

ঐক্যবদ্ধ বিরোধী দল

আপনাকে জানিয়ে রাখি যে রাহুল গান্ধীকে অযোগ্য সাংসদ ঘোষণা করার ইস্যুতে, অন্যান্য বিরোধী দলগুলিও কংগ্রেসের সাথে দাঁড়িয়েছে। সমস্ত বিরোধী দল রাহুলের বিরুদ্ধে মোদি সরকারের একনায়কত্ব এবং বিরোধীদের কণ্ঠস্বর দমন এবং গণতন্ত্র হত্যার অভিযোগ তুলেছে।

উল্লেখ্য, এদিন পার্লামেন্ট চত্ত্বরে কংগ্রেস সাংসদরা রাহুল গান্ধীর সাংসদ পদ খারিজ হয়ে যাওয়ার প্রতিবাদে কালো শার্ট পরে মিছিল করেন। তেলাঙ্গনায় কংগ্রেসের প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী কে চন্দ্রশেখর রাওয়ার ভারত রাষ্ট্র সমিতি ও শিবসেনাও কংগ্রেস সাংসদদের সঙ্গে কালো শার্ট পরে মিছিলে যোগ দিয়েছে। যদিও গতকালই উদ্ধব ঠাকরে বিনায়ক সাভারকারকে ইস্যুতে রাহুল গান্ধীর মন্তব্যের জন্য তাঁকে সতর্ক করেছিলেন। বলেছিলেন এজাতীয় মন্তব্য বিরোধী ঐক্যে ফাটল ধরাতে পারে।