পেটের ভেতর রয়েছে ২৪ কেজি টিউমার।  সেই টিউমার অপারেশন করে নজির গড়লেন দিল্লির ডাক্তাররা। অপারেশনের পরে ডাক্তারদের রীতিমতো চক্ষু চড়কগাছ। প্রায় দু'টি ফুটবলের মত চেহারা টিউমারের। একটা গোটা মহাদেশ রোগীকে ফেরালেও ফেরাল না ভারত। 

দার এস সালাম এর বাসিন্দা অ্যালস জন জয়ি ২০১৭ সাল থেকে ভুগছিলেন পেটের ব্যথায়।  আফ্রিকায় বারবার চেষ্টা করেও তাঁর অসুখ সারাতে পারেননি চিকিৎসকরা। পেটে ব্যথায় কাবু হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন এই ৩১ বছর বয়েসি যুবক। অপারেশনও হয়েছে, কিন্তু সুরাহা হয়নি। তখন তিনি ইন্টারনেটের মাধ্যমে যোগাযোগ করেন দিল্লির ডাক্তারদের সঙ্গে। ঠিক হয় অ্যাপয়নমেন্টের তারিখ।

দিল্লির ফর্টিস হাসপাতালের চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, অত্যন্ত জটিল এই অপারেশনের সময় লেগেছে প্রায়  ৬ ঘণ্টা। প্রায় চার লিটার রক্ত গিয়েছে এই রোগীর। তাঁকে বেশ কয়েকদিন ভেন্টিলেশনেও রাখতে হয়। আপাতত তিনি অনেকটাই সুস্থ।

সাংবাদিকদের জয়ি বলেন, 'আমি তানজিনিয়ায় অপারেশন করিয়েছিলাম। কিন্তু চিকিৎসকেরা টিউমারটি বের করতে পারেনি। তখন আমি ইন্টারনেটের মাধ্যমে জানতে পারি, বহু আফ্রিকান ভারতে গিয়ে টিউমারের চিকিৎসা করাচ্ছেন। এবং সুস্থ হয়ে দেশে ফিরে আসছেন। আমিও তাই এসেছিলাম।ধীরে ধীরে সুস্থ হচ্ছি আমি। আশা করি খুব শিগগির দেশে ফিরতে পারব।'

প্রসঙ্গত ইরান, কেনিয়া, আফগানিস্তান, নাইজেরিয়া প্রভৃতি দেশগুলিতে মেডিক্যাল ট্যুরিজমের দেশ হিসেবে জনপ্রিয় হয়ে উঠছে ভারত। চিকিৎসকদের হাতযশের প্ৰশংসা ছড়িয়ে পড়ছে গোটা দেশে। চিকিৎসক বনাম রোগী যুদ্ধে যখন পশ্চিমবঙ্গ তথা ভারতবর্ষেই অশেষ দুর্ভোগ চলেছে গত সাতদিন, তখন নতুন নজির গড়ল ভারতীয় ডাক্তাররাই।