গত ২ বছর ধরে অসহ্য পিঠের যন্ত্রনায় ভুগছিলেন হায়দরাবাদের ১৯ বছরের এক কিশোরী। শেষপর্যন্ত চিকিৎসকদের শরানপন্ন হন তিনি।  উপায় না দেখে অস্ত্রোপচারের সিদ্ধান্ত নেন নিজাম ইনস্টিটিউট অফ মেডিক্যাল সায়েন্সের চিকিৎসকরা। 

অস্ত্রোপচার করতেই অবাক কাণ্ড। ১৯ বছরের কিশোরীর পিঠ থেকে উদ্ধার হল আস্ত একটি বুলেট। বিষয়টি নিয়ে ইতিমধ্যে পঞ্জাগুট্টা পুলিশ স্টেশনে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

আরও পড়ুন : দেরিতে বিমান ওড়া নিয়ে বিজেপি সাংসদ সাধ্বী প্রজ্ঞাকে কড়া ভাষায় জবাব বিরক্ত যাত্রীদের, ভাইরাল হল ভিডিও

ফলকনামার জাহানুমার বাসিন্দা আসমা বেগম পরিচারিকার কাজ করতেন। গত শনিবার তাঁর পিটের ব্যাথা অসহ্য হয়ে উঠলে  নিজাম ইনস্টিটিউট অফ মেডিক্যাল সায়েন্সে যান তিনি। সেদিন বিকেলেই তাঁর অস্ত্রোপচার করা হয়। পিঠ থেকে বের করা হয় বুলেট।

কীভাবে পিঠে এই বুলেট এল তা নিয়ে অবশ্য আসমা এবং তাঁর পরিবারের সদস্যরা মুখ খুলতে চাননি। রবিবার হাসপাতাল কর্তৃপক্ষই পুলিশে খবর দেয়। 

আরও দেখুন : বিড়ালের ক্যাটওয়াকে মাত হল দর্শকরা, অভিনব আয়োজন কোয়েম্বাটোরে

অভিযোগ পেয়েই হাসপাতালের পাশাপাশি জাহানুমায় আসমার বাড়িতে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য যায় পুলিশ। উদ্ধার হওয়া বুলেটটি পরীক্ষার জন্য ফরেন্সিক ল্যাবে পাঠান হয়েছে। তবে কীভাবে এই বুলেট আসমার শরীরে এল তা নিয়ে পিরবারের কেউই কিছু জানতেন না বলে পুলিশের কাছে দাবি করছেন আসমার পরিজনরা।