করোনা আক্রান্ত রাজ্যের তালিকায় এখনও প্রথম স্থান ধরে রেখেছে মহারাষ্ট্র। আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে লাফিয়ে লাফিয়ে। শুক্রবার কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী আক্রান্তের সংখ্যা ১৮ হাজার ছুঁতে চলছে। মৃত্যু হয়েছে ৬৯৪ জনের। শুধু মাত্র দেশের বাণিজ্য নগরী হিসেবে পরিচিত মুম্বইতেই মৃত্যু হয়েছে ৪৩৭ জনের। আর আক্রান্তের সংখ্যা ১১ হাজারের হাজারের বেশি। এই পরিস্থিতি দাঁড়িয়ে মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে বড়সড় রদবদল ঘটালেন মুম্বই মিউনিসিপ্যাল কর্পোরেশনে। মুম্বইয়ের নাগরিক কমিশনারের পদ থেকে সরিয়ে দিলেন প্রবীন পরদেশীকে। তাঁর স্থানে আনা হয়েছে আরবান ডেভলপমেন্টের অ্যাডিশনাল চিপ সেক্রেটারি ইকবাল সিং চাহালকে। আর চাহালের পদে নিয়ে যাওয়া হয়েছে পরদেশীকে। 

অন্যদিকে মুম্বইয়ের অতিরিক্ত পৌর কমিশনার আব্বাস সাহেব জারহাদকেও সরিয়ে দেওয়া হয়েছ। তাঁর স্থানে নিয়ে আসা হয়েছে থানের পৌর কমিশনার সঞ্জীব জয়সওয়ালকে।

আরও পড়ুনঃ করোনা আক্রান্তের সংখ্যা নিয়ে মমতাকে নিশানা বাবুল সুপ্রিয়র, বললেন মুখ্যমন্ত্রী নিজেকে বিশেষ মনে করেন ...

আরও পড়ুনঃ মৃত্যুপুরী আমেরিকায় করোনা প্রাণ কাড়ল চিকিৎসক বাবা ও মেয়ে, জন্মসূত্রে তাঁরা ভারতীয় ..

আরও পড়ুনঃ টিকিটের ৩গুণ বেশি দাম দিতে অস্বীকার, মোদীর মডেল রাজ্য গুজরাতেই রক্তাক্ত হল শ্রমিক ...  

অন্যদিকে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রী রাজ্যে উর্দ্ধোতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলেছিলেন। কেন্দ্রীয় সরকার সবরকম সাহায্য করতে প্রস্তুত বলেও জানিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু রাজ্যের প্রধান প্রতিপক্ষ বিজেপি রীতিমত চাপ বাড়িয়ে  যাচ্ছে ক্ষমতাসীন শিবসেনা, এনসিপি ও কংগ্রেস জোট সরকারের ওপর। করোনা মোকাবিলায় সরকার ব্যর্থ বলেও অভিযোগ তুলেছে  রাজ্যের বিজেপি। এই অবস্থায় দাড়িয়ে কিছুটা হলেও সমস্যায় পড়েছেন মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে সম্ভব্য সবকরম প্রচেষ্টাই তিনি করছেন বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। রাজ্যের স্বাস্থ্য মন্ত্রী বলেছেন আগামী ১৫ থেকে ২০ দিনের মধ্যেই রাজ্যে আক্রান্তের সংখ্যা কমবে। কারণ পরিস্থিতি মোকাবিলায় স্বাস্থ্য বিধি মেনেই সব পদক্ষেপ করা হচ্ছে।