সকাল সকালে রাস্তার ওপর ঘুরে বেড়াচ্ছিল একটি কুমীর। তার তাতেই ত্রস্ত হয়ে ওঠেন গুজরাটের ভাদোদরা জেলার রাজমহল রোড এলাকার বাসিন্দারা। স্থানীয় প্রাশন সূত্রে খবর খুব ভোর এক ব্যক্তি বাড়ি থেকে বেরিয়েছিলেন। তিনি প্রথমে রাস্তার ধারের একটি বেঞ্চের তলায় প্রথম কুমীরটিকে দেখতে পান। তারপরই খবর দেওয়া হয় বন বিভাগে। 

গুজরাত সোসাইটি ফর প্রভেনশন অফ ক্রুয়েল্টি টু অ্যানিমালস পাঁচ ফুট লম্বা কুমীরটি উদ্ধার করে। কিন্তু এই কুমীর উদ্ধারের পর্ব খুব একটা সহজ ছিল না। কারণ একটি কুমীর ধরতে রীতিমত কসরত করতে হল উদ্ধারকারী দলের কর্মীদের।  তবে সংস্থার পক্ষ থেকে জানান হয়েছে কুমীরটিক কোনও ক্ষতি হয়নি। সকাল ৬টা নাদাগ খবর পাওয়ার পরই তড়িঘড়ি দুই উদ্ধারকর্মীকে পাঠান হয়েছে বলেও জানান হয়েছে সংস্থার পক্ষ থেকে। তাঁরা উদ্ধার হওয়া সরীসৃপটি স্থানীয় বন বিভাগের হাতে তুলে দিয়েছেন বলেও জানিয়এছেন সংস্থার অধিকর্তা। 

 

সংস্থার পক্ষ থেকে জানান হয়েছে প্রবল বৃষ্টির কারণে বন্য প্রাণী কখনও কখনও লোকালয়ে চলে আসছে। তবে স্থানীয়দের কাছে আবেদন করা হয়েছে লোকালয়ে চলে আসা বন্যপ্রাণীদের যেন কোনও ক্ষতি না করা হয়। আর সেই কারণেই উদ্ধারকারী দলের ফোন নম্বরও বিলি করা হয়েছে। সংস্থার পক্ষ থেকে জানান হয়েছে ২৪ ঘণ্টাই ফোন করা যেতে পারে। উদ্ধারকারীও সর্বদা তৈরি থাকেন বলেও জানান হয়েছে। 

সত্যি কি ভারতের স্বাধীনতা দিসব উদযাপন করেছিল মার্কিন সেনা, ভাইরাল ভিডিওর ফ্যাক্ট চেক কী বলছে ..

লালফৌজদের ওপর আর ভরসা নেই ভারতীয় জওয়ানদের, চিনা সেনার পাল্টা অবস্থান কুগ্রাং নদী তীরে

দিল্লিতে বসে দলাই লামার খোঁজ নিচ্ছিল হাওয়াকাণ্ডে ধৃত চিনা নাগরিক, কী ছিল অভিসন্ধি ...