বৃহস্পতিবার খালিস্তান জিন্দাবাদ ফোর্সের তরফে প্রকাশ করা হয়েছে চাঞ্চল্যকর তথ্য। সীমান্ত পেরিয়ে যে চারটি ড্রোন অস্ত্র সরবরাহ করত সেগুলি পঞ্জাবের তর্ন তারন প্রদেশে লুকিয়ে রয়েছে বলে জানায় তারা। 

প্রসঙ্গত চলতি সপ্তাহের গোড়ার দিকে প্রকাশিত হয়েছিল এমনই চাঞ্চল্যকর তথ্য যেখানে বলা হয়েছিল, পাকিস্তান থেকে অস্ত্র সরবরাহের জন্য ড্রোন ব্যবহার করা হচ্ছে। ওইসব ড্রোনগুলির সঠিক অবস্থান শনাক্ত করতে পঞ্জাব পুলিশের তরফে তল্লাশি অভিযান চালানো হচ্ছে। এই প্রসঙ্গে কেন্দ্রীয় প্রতিরক্ষা প্রতিমন্ত্রী শ্রীপদ ইয়েসা নায়েক জানিয়েছেন, সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে ভারতীয় সেনাবাহিনী আরও সক্রিয় হয়ে উঠেছে। তিনি এও জানান যে, ভারত এই বিষয়গুলির সঙ্গে মোকাবিলা করতে সক্ষম, এই নিয়ে উদ্বেগের কোনও বিষয় নেই বলেও জানান তিনি।

আরও পড়ুন- আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে সমাদৃত স্বচ্ছ ভারত অভিযান, 'গ্লোবাল গোলকিপার' পুরস্কার পেলেন নমো

আরও পড়ুন- বিরাট দুর্ঘটনার কবলে প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর কনভয়, ঘটনাস্থলে মৃত ২, ৩ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক

আরও পড়ুন- চন্দ্রপৃষ্ঠে হার্ড ল্যান্ডিং হয়েছে বিক্রমের, টুইট করে ল্যান্ডারের অবতরণের স্থান প্রকাশ নাসার

এই ঘটনার জেরে ভারতীয় সেনা এবং বর্ডার সিকিউরিটি ফোর্সের তরফে সীমান্তরেখা এবং ভারত-পাকিস্তান সীমান্তেও কড়া পাহাড়া মোতায়েন করা হয়েছে। শেষ পাওয়া তথ্য অনুসারে, ড্রোনগুলির উচ্চতা এবং ওজনের জন্য় সেগুলি অবতরণের পরে সন্ত্রাসবাদীরা সেইসব ড্রোনগুলিকে হয় ধ্বংস করে দিয়েছে না হয়, তা লুকিয়ে দেওয়া হয়েছে। প্রসঙ্গত, ভারত-পাক সীমান্তের নিকটবর্তী মহাওয়া গ্রাম থেকে এক টি ড্রোন উদ্ধার করা হয়েছে বলে খবর। পঞ্জাব পুলিশের বিশেষ অপারেশন উইং-এর তরফে এখনও অনুসন্ধানের চেষ্টা করা হচ্ছে। পাশাপাশি আরও জানানো হয়েছে যে, পাকিস্তানের তরফে কোনও ড্রোন ধরা পড়লে তাকে গুলিবিদ্ধ করা হবে বলেও জানিয়েছে তারা।