দেশের অর্থনীতিক অবস্থার হাল ধরাই এখন মোদী সরকারের কাছে সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ। গাড়ি শিল্পের পাশাপাশি একাধিক শিল্পে চলতে থাকা মন্দার জের বহু কর্মচারী আজ বেকার। গাড়ি শিল্পের সঙ্গে যুক্ত বহু কর্মচারীকেই ছাঁটাই করে দেওয়া হয়েছে। দেশের আর্থিক পরিস্থিতি তুলে ধরে ইতিমধ্যেই মোদী সরকারের বিরুদ্ধে তোপ দেগেছেন বিরোধীরা।

তবে এবার দেশের আর্থিক মন্দার পরিস্থিতি বদলাতে শনিবার নয়া দিল্লিতে একটি সাংবাদিক বৈঠকের আয়োজন করে কেন্দ্রের তরফে একাধিক সিদ্ধান্তের কথা ঘোষণা করলেন অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ। শনিবার অর্থমন্ত্রী জানান যে, কর ব্যবস্থা নিয়ে সাধারণ মানুষের ভয় পাওয়ার কোনও কারণ নেই। কারণ অল্পবিস্তর কর ফাঁকি দিলে তার বিরুদ্ধে কোনও ব্যবস্থা নেবে না আয়কর দফতর। শনিবার এমনটাই জানালেন তিনি। 

অর্থমন্ত্রীর কথায়, একমাত্র নির্দিষ্ট কয়েকটি উপযুক্ত ক্ষেত্রেই কর ফাঁকি দেওয়া হলে তার বিরুদ্ধেই ফৌজদারি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে আয়কর দফতর। তিনি আরও জানান যে, ২৫ লক্ষ টাকার নীচে কর ফাঁকি দেওয়া হলে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার আগে দুজন উচ্চপদস্থ অফিসারের কলেজিয়ামে অনুমোদন পেলে তবেই কার্যকরী ভূমিকা পালন করা হবে। 

প্লাস্টিক মুক্ত দেশ গড়ার ডাক, সিগারেটের বাট-সহ ১২ রকমের প্লাস্টিক নিষিদ্ধের পথে কেন্দ্র

চাহিদা মেটাতে বাধা অর্থের যোগান, কেন্দ্রের কাছে অতিরিক্ত ৪০ হাজার কোটির আবেদন বায়ুসেনার

দেশকে এক সূত্রে বাঁধতে পারে হিন্দি, জাতীয় হিন্দি দিবসে ফের ভাষা চাপানোর জল্পনা উস্কে দিলেন অমিত শাহ

যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘনের জের, সাদা পতাকা দেখিয়ে উদ্ধার করা হল নিহত দুই পাকিস্তানি সেনাকে

অর্থনীতিকে চাঙ্গা করে তুলতে রফতানির ওপর এক্সপোর্ট ক্রেডিট ইনসিওরেন্স স্কিমকে আরও বাড়িয়ে কেন্দ্রের তরফে ঘোষণা করা হয়েছে, রফতানির ক্ষেত্রে ব্যাঙ্ক ঋণের ওপর পণ্যের বিমার পরিমাণ বাড়ানো হবে। পাশাপাশি কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে আরও জানানো হয়েছে যে, কুটির, ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পকে সঠিকভাবে আধুনীকিকরণের ব্যবস্থা করা হবে। রফতানির বাজার পোক্ত করতে দেশের চারটি জায়গায় দুবাইয়ের আদলে মেগা শপিং ফেস্টিভ্যালের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানালেন অর্থমন্ত্রী। পাশাপাশি অসমাপ্ত আবাসন প্রকল্পে দশ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ করার সিদ্ধান্তের কথা ঘোষণা করেছে কেন্দ্রীয় সরকার।