এক দিনের সফরে পুদুচেরিতে গিয়ে কংগ্রেসকে নিশানা বানালেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। কথা প্রসঙ্গে তিনি কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধীর মৎসমন্ত্রক নিয়ে মন্তব্যের কথাও উল্লেখ করেন। তিনি বলেন, কংগ্রেস বিভাজন, মিথ্যার রাজনীতি করছে। আর মিথ্যা কথা বলার জন্য স্বর্ণ, রৌপ্য আর ব্রোঞ্জ পদক জয় করেছে কংগ্রেস। তিনি আরও বলেন তিনি আবাক হয়েছে যে কংগ্রেসের প্রাক্তন প্রধান জানেনই যা ২০১৯ সালে কেন্দ্রীয় সরকার মৎস মন্ত্রক গঠন করেছে। 

বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী পুদুচেরিতে বেশ কয়েকটি উন্নয়নমূলক প্রকল্পের উদ্বোধন করেন। আগামী এপ্রিম অথবা মে মাসে অসম ও পশ্চিমবঙ্গের সঙ্গে এই কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলেও ভোট গ্রহণ হওয়ার কথা রয়েছে। যদিও সরকার পক্ষের ৬ বিধায়ক ইস্তফা দেওয়ায় আস্থা ভোটের আগেই পদত্যাগ করেছেন কংগ্রেস পক্ষের মুখ্যমন্ত্রী নারায়ণস্বামী। এখনও পর্যন্ত সরকার গঠনের দাবি জানায়নি বিজেপি। 

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এদিন সরাসরি পুদুচেরির পূর্বতন কংগ্রেস সরকারকে আক্রমণ করে বলেন কংগ্রস সরকারের পতন উদযাপন করছেন স্থানীয় বাসিন্দারা। স্থানীয় বাসিন্দাদের উন্নয়নের জন্য পুদুচেরি সরকারের পক্ষে কোনও পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়নি বলেও অভিযোগ করেন তিনি। উপকূলীয় এলাকা আর মৎসজীবীদের উন্নয়নের জন্য কেন্দ্রীয় সরকারের প্রকল্পগুলি সেখানে কর্যকর করা হয়নি বলেও অভিযোগ করেন নরেন্দ্র মোদী। 

দ্রুত সংক্রমণ ছড়িয়ে দেওয়ার ক্ষমতা রাখে করোনার নতুন রূপ, আশঙ্কার কথা বললেন ভারতীয় বিশেষজ্ঞ ...

লাদাখ সেক্টরে অস্থিরতার সময় তথ্য পাচারের অভিযোগ, ভারতীয় সেনা বাহিনীতেও কি পাক গুপ্তচর ...

পুদুচেরির আগের সরকারকে তিনি কংগ্রেস হাইকমান্ড সরকার বলেও অভিহিত করেন। প্রধানমন্ত্রী বলেন,পুদুচেরিতে এমন সরকার প্রয়োজন সেখানে হাইকমান্ডের ভূমিকা পালন করবেন স্থানীয় বাসিন্দারা। দিল্লিতে বসে থাকা কোনও ব্যক্তি নয়। ২০১৬ সালের নির্বাচনে পুদুচেরির বাসিন্দারা জনগণের সরকার পায়নি। সেখানকার মানুষ এমন একটি সরকার পেয়েছিল যাঁর দিল্লির হাইকমান্ডের নির্দেশ পালনেই ব্যস্ত ছিল।  তিনি আরও বলেন বিজেপি বা এনডিএ চায় পুদুচেরিকে সেরা বানাতে চায় বিজেপি। ব্যবসা, শিক্ষা , আধ্যাত্মিক  পর্যটন- সবক্ষেত্রে পুদুচেরি এগিয়ে যাবে আগামী দিনে তেমনই আশা প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী।