অষ্টম বারের জন্য রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে অস্থায়ী সদস্যপদ পেয়েছে ভারত। ২০২১ সালের জানুয়ারি মাস থেকে নতুন সদস্য হিসাবে নিরাপত্তা পরিষদে নিজের কাজ শুরু করবে ভারত সরকার। রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে ভারতের এই অস্থায়ী সদস্যপদ পাওয়ার বিষয়টি এল এমন সময় যখন চিনেক সঙ্গে লাদাখ সীমান্তে বিবাদ নিয়ে উত্তপ্ত হয়ে রয়েছে দুই দেশই। আর সবচেয়ে অবাক করার বিষয়ে চিনের সমর্থনেই এই সদস্যপদ পাচ্ছে ভারত।

আরও পড়ুন: ফের একবার রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে অস্থায়ী সদস্য হল ভারত, এই নিয়ে অষ্টমবার নির্বাচিত

রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে এশিয় ও প্রশান্ত মহাসাগরীয় এলাকা থেকে ভারত নিজের আসনটি সুরক্ষিত করেছে। তবে প্রায় একবছর আগেই ভারত যে নিরাপত্তা পরিষদে অস্থায়ী সদস্যপদ পাবে সেই বিষয়টি নিশ্চিত ছিল। রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে ২০২১-২২ সালের অস্থায়ী সদস্যপদের জন্য দাবি জানিয়েছিল ভারত। সেই দাবিকে সমর্থন করার কথা এক বচর আগেই জানিয়ে দেয়  এশিয়া-প্যাসিফিক গোষ্ঠীর ৫৫টি দেশ। এর ফলে কার্যত বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতাতেই রাষ্ট্রসংঘে এই সম্মানজনক পদ পেতে চলেছে ভারত তা নিশ্চিত ছিল।

আরও পড়ুন: চিনের বিরুদ্ধে পাল্টা আক্রমণ না আপস, পরিকল্পনা সাজাতে ১৯ জুন সর্বদল বৈঠক ডাকলেন মোদী

এবার ছাড়া আগেও আর সাতবার নিরাপত্তা পরিষদের অস্থায়ী সদস্য হয়েছিল ভারত। তবে কোনও বারই ভারত ভোটাভুটি ছাড়া নিরাপত্তা পরিষদে অস্থায়ী সদস্য হতে পারেনি। এই প্রথম সদস্যপদ পেতে ভারতকে এশিয় ও প্রশান্ত মহাসাগরীয় গ্রুপে কোনও লড়াই করতে হয়নি। নিরাপত্তা পরিষদের অস্থায়ী সদস্য পদ পেতে ভারতকে সমর্থন করেছে এই এলাকার ৫৫টি দেশই। এমনকি চিন ও পাকিস্তানও গত জুনে ভারতকে এই বিষয়ে সমর্থন জানায়। সেদিক থেকে এটা মোদী সরকারের জয় বলেই দেখাতে চাইছে কেন্দ্রে ক্ষমতায় থাকা বিজেপি শিবির।

 

 

এশিয় ও প্রশান্ত মহাসাগরীয় গ্রুপে ৫৫টি দেশের মধ্যে পাকিস্তান, চিন ছাড়াও রয়েছে আফগানিস্তান, বাংলাদেশ, সৌদি আরব, ভুটান, ইন্দোনেশিয়া, ইরান, জাপান, কুয়েত, মালয়েশিয়া, মলদ্বীপ, নেপাল, শ্রীলঙ্কা, সিরিয়া, কাতার, তুরস্ক, কিরঘিজস্তান, মায়ানমার, সংযুক্ত আরব আমিরশাহী ও ভিয়েতনামের মতো দেশগুলি। এরা প্রত্যেকেই  ভারতের সদস্যপদকে সমর্থন জানিয়েছে।

নিরাপত্তা পরিষদের অস্থায়ী সদস্য হওয়ার জন্য ১০টি দেশকে ভোটাভুটির মাধ্যমে বেছে নেওয়া হয় ৫টি এলাকা থেকে। আফ্রিকা ও এশিয়া, পূর্ব ইউরোপ, লাতিন আমেরিকা, ক্যারিবিয়ান রাষ্ট্র এবং পশ্চিম ইউরোপ-সহ অন্যান্য দেশ। আফ্রিকা ও এশিয়া থেকে বেছে নেওয়া হয় সর্বাধিক ৫টি দেশ, পূর্ব ইউরোপ থেকে একটি, লাতিন আমে‌রিকা ও ক্যারিবিয়ান রাষ্ট্রগুলির এলাকা থেকে ২টি আর পশ্চিম ইউরোপ-সহ অন্যান্য দেশ থেকে ২টি। বর্তমানে রাষ্ট্রসংঘে স্থায়ী সদস্যপদে রয়েছে চিন, ফ্রান্স, রাশিয়া, ব্রিটেন ও আমেরিকা। 

১৯৩ সদস্যের নিরাপত্তা পরিষদে ভারতের দরকার ছিল দুই তৃতীয়াংশ দেশের সমর্থন। ১৭ জুনের নির্বাচনে ভারত সেখানে পেয়েছে ১৮৪টি দেশের ভোট। ভারত ছাড়াও এদিন অস্থায়ী সদস্যপদ পেল আয়ারল্যান্ড, মেক্সিকো ও নরওয়ে। বর্তমানে যে ১০টি দেশ নিরাপত্তা পরিষদের অস্থায়ী সদস্য পদে রয়েছে তারা হল- বেলজিয়াম, কোতে দ্য ভঁয়ে, ডমিনিকান রিপাবলিক, ইকোয়েটোরিয়াল গিনি, জার্মানি, ইন্দোনেশিয়া, কুয়েত, পেরু, পোল্যান্ড ও দক্ষিণ আফ্রিকা।