প্রতিদিনই দেশে বেড়েই চলেছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে সংক্রমণের শিকার হয়েছে ১,৩৮৩ জন। ফলে ভারতে কোভিড ১৯ রোগের সংখ্যা ২০ হাজারের গণ্ডি ছুঁয়ে ফেলেছ। আক্রান্তের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে মৃতের সংখ্যাও। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা সংক্রমণে প্রাণ হারিয়েছেন ৫০ জন। যার ফলে দেশে মৃতের সংখ্যা হয়ে গিয়েছে ৬৪০। এই অবস্থায় নাগরিকদের শারীরিক পরিস্থিতি জানতে সার্ভে চানানোর সিদ্ধান্ত নিল কেন্দ্রীয় সরকার।

ভ্যাকসিন আবিষ্কারের পথে অনেকটাই এগিয়ে গেল ব্রিটেন, শুরু হচ্ছে মানবদেহে প্রয়োগ

দেশে করোনা মোকাবিলায় এবার 'কালো ঘোড়া' সেপসিস ড্রাগ, ভরসা রাখছে এইমস

বাড়ি থেকে আড়াই হাজার কিলোমিটার দূরে আটকে পরিবার, ত্রিপুরায় জন্ম হল লকডাউনের

জনে জনে ফোন করে করোনা সম্পর্কিত সার্ভে চালাবে কেন্দ্রীয় সরকার। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের তরফে ট্যুইট করে একথা জানানো হয়েয়ে। ট্যুইটে বলা হয়েছে, ‘১৯২১’ নম্বর থেকে ফোন করে মোবাইলেই করোনা সম্পর্কিত তথ্য আদান–প্রদান করা হবে। করোনার সংক্রমণ রুখতে সাধারণ মানুষের মূল্যবান উপদেশও গুরুত্ব দিয়ে শোনা হবে। 

১৯২১ নম্বর থেকে খুব শীঘ্রই নাগরিকদের কাছে ফোন আসা শুরু হয়ে যাবে বলে জানা যাচ্ছে। এই সার্ভেতে প্রত্যেক নাগরিকদের যোগ দেওয়ার আবেদন জানানো হয়েছে কেন্দ্রের তরফে। পাশাপাশি বলা হয়েছে, অন্য কোনও নম্বর থেকে ফোন করে এই সম্পর্কে তথ্য জানতে চাওয়া হলে, তা যেন না জানানো হয়। ১৯২১ ছাড়া সব নম্বরই ভুয়ো হবে বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্যমন্ত্রক। 

 

 

বর্তমানে দেশে করোনা সংক্রমমে সবচেয়ে এগিয়ে রয়েছে মহারাষ্ট্র। এই রাজ্যে আক্রান্তের সংখ্যা ৫ হাজার ছাড়িয়ে গিয়েছে।  দিল্লিকে ছাড়িয়ে দ্বিতীয় স্থানে উঠে এসেছে প্রধানমন্ত্রীর রাজ্য গুজরাত। বর্তমানে গুজরাতে করোনা সংক্রমণের শিকার ২,১৭৮ জন। তৃতীয় স্থানে রয়েছে রাজধানী দিল্লি। আক্রান্তেরং সংখ্যা ২,১৫৬। এরপরে যথাক্রমে রয়েছে , রাজস্থান,তামিলনাড়ু, মধ্যপ্রদেশ, উত্তরপ্রদেশ এবং তেলেঙ্গনা।