কহিনুরের ছটা কি ম্লান করে দেবে এই মেরিগোল্ড আংটি? গয়না প্রেমি বা হিরে বিশারদদের কাছে সেটি লাখ টাকার প্রশ্ন। কিন্তু এই মেরি গোল্ড আংটির দৌলতে ভারত আবারও গিনেজ বুক অব ওয়াল্ড রেকর্ডে জায়গা করে নিয়েছে। কারণ গাঁদা ফুলের মত দেখতে এই আংটিটি তৈরি হয়েছে ১২ হাজার ৬৩৮টি ছোট হিরে দিয়ে। আংটিটির ওজন ১৬৫ গ্রাম। 

২৫ বছরের গয়না প্রস্তুতকারণ হরিষ বানসাল এই বিরাটাকার আংটিটি তৈরি করেছেন। তিনি বলেছেন এটি দেখতে বড় হলেও পরলে খুব একটা সমস্যা হবে না। তাঁর কথা এটি অত্যান্ত আরামদায়ক। তিনি আংটিটির নাম রেখেছেন দ্যা মেরিগোল্ড - সমৃদ্ধির আংটি। তিনি জানিয়েছেন দুবছর আগে এমনই একটি আংটি তৈরির পরিকল্পনা গ্রহণ করেছিলেন তিনি। তিনি কোনও নকশা তৈরি করেননি। নিজের এই প্রচেষ্টাকে তিনি স্বপ্নের প্রকল্প হিসেবে বর্ণনা করেছেন। একটি বিবৃতিতে জানান হয়েছে আটটি স্তরে ফুলের পাঁপড়ির নকশা ফুটিয়ে তোলার চেষ্টা করা হয়েছে এই আংটিতে।প্রতিটি ছোট ছোট আংটি আলাদা আলাদা করে তৈরি করা হয়েছে।  

বনসাল জানিয়েছেন, ২ বছর আগে ভারতের হীরক কেন্দ্র গুজরাতের সুরাতে তিনি জুয়েলারি ডিজাইন নিয়ে পড়ছিলেন। সেই সময়ই তাঁর মাথায় এসেছিল এমন একটি আংটি তৈরির করার পরিকল্পনা। প্রথমে তিনি চেয়েছিলেন ১০ হাজারেও বেশি হিরে দিয়ে একটি আংটি তৈরি করতে। তিনি তাঁর ঘনিষ্টদের কাছে পরিকল্পনা কথা যখন বলেছিলেন তখন সকলেই তা উড়িয়ে দিয়ে বলেছিল খুব বোকা বোকা পরিকল্পনা। একই সঙ্গে হতাশ করারও চেষ্টা করেছিল। কিন্তু হাল ছাড়েননি বানসাল। ১০ হাজারেরও বেশি হিরে দিয়ে আংটি তৈরির কাজ শুরু করেছিলেন। তিনি জানিয়েছেন এই আংটি কেনার প্রস্তাব অনেকেই দিয়েছেন। কিন্তু এখনও পর্যন্ত তিনি সকেলের প্রস্তাবই ফিরিয়ে দিয়েছেন। তাঁর সমৃদ্ধির আংটি নিজের কাছে রাখতে চান বনসাল। তিনি বলেছেন এই আংটি তাঁর কাছে গর্বের। তাঁর কাছে এটির মূল্য অনেক। গিনেস বুকে এর আগে যে আংটিটি রেকর্ড করেছিল সেটি তৈরি হয়েছিল ৭ হাজার ৮০১টি হিরে তৈরি। সেটির প্রস্তুতকারকও ছিলেন ভারতীয়।