ভারতে টেলিকম যুদ্ধে আগুন লাগিয়ে দিল দিল্লি উপকণ্ঠে টানা ২০ দিন ধরে চলা কৃষক বিক্ষোভ। কারণ কৃষকরা রিলায়েন্সের জিনিস বয়কট করার ডাক দিয়েছেন। আর কৃষকদের এই বার্তাকে হাতিয়ার করে  রিলায়েন্স টেলিকমিউনিকেশনের জিও-র বিরুদ্ধে প্রচার শুরু করেছে প্রতিপক্ষ ভোডাফোন-আইডিয়া ও ভারতী এয়ারটেল। তেমনই অভিযোগ তুলে সরব হয়েছে জিও। 

সোমবার জিওর পক্ষ থেকে নিয়ন্ত্রক সংস্থার কাছে একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। তাতে বলা হয়েছে ভারতী এয়ারটেল ও ভোডাফোন আইডিয়া অনৈতিক উপায় অবলম্বন করছে। ও বেআইনি গুজব ছড়িয়ে দিচ্ছে। দুটি সংস্থাই তাদের প্রচারে দাবি করছে কেন্দ্রের পাশ করা নতুন তিনটি আইন থেকে কোনও না কোনও ভাবে লাভববান হবে রিলায়েন্স। দিন কয়েক আগেই কৃষক আন্দোলন থেকেই রিলায়েন্সের পণ্য বয়কট করার ডাক দিয়েছিল কৃষকরা। তারপর থেকেই ভারতে টেলিকম যুদ্ধের আগুনি ঘি পড়েছে। টেলিকম রেগুলেটারি অথরিটি অব ইন্ডিয়া বা ট্রাই-এর কাছে একটি কড়া চিঠি লিকেছে জিও কর্তৃপক্ষ। সেখানেই অনৈতিক প্রচারের অভিযোগ তুলে সরব হয়েছে সংস্থাটি।  চিঠিতে আরও বলা হয়েছে গ্রাহকদের কাছে জিও পরিষেবা সংক্রান্ত কোনও অভিযোগ নেই। কিন্তু তারপরেও প্রতিপক্ষের তরফ থেকে নম্বর পোর্ট করার অনুরোধ করা হয়েছে। যা অন্যায় বলেও দাবি করা হয়েছে। 

কলকাতায় বসে চিন আর পাকিস্তানকে হুঁশিয়ারি বিপিন রাওয়াতের, বললেন প্রস্তুত রয়েছে ভা

কলকাতা থেকে যাত্রা শুরু করল INS হিমগিরি, ভারত কি বার্তা দিল চিন আর পাকিস্তানকে ... R

যদিও প্রতিপক্ষ ভারতী এয়ারটেল তাদের বিরুদ্ধে ওঠা সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করেছে। জিও তোলা অভিযোগ ভিত্তিহীন বলেও দাবি করা হয়েছে। ভারতী এয়ারটেল বলেছে, তাদের ব্যবসা স্বচ্ছতার ওপর নির্ভর করে চলে। যা নিয়ে সংস্থাটি গর্বিত বলেও দাবি করা হয়েছে। অন্যদিকে ভোডাফোন ইন্ডিয়ার একটি বিবৃতি জারি করেছে। সেখানে বলা হয়েছে, ভি নৈতিকতা অবলম্বন করে ব্যবসা করছে। সংস্থার সুনাম বজায় রাখতে কর্তৃপক্ষ যত্নবান বলেও দাবি করা হয়েছে। জিও তাদের সংস্থাকে জড়িয়ে ভিত্তিহীন অভিযোগ তুলেছে বলেও দাবি করা হয়েছে।