দক্ষিণ ভারতের বিভিন্ন মন্দিরের মতো এবার বারাণসীর বিখ্যাত কাশী-বিশ্বনাথ মন্দিতে চালু হল পোশাকবিধি। মন্দিরের প্রবেশ করতে গেলে মানতে হবে সেই নিয়ম। মন্দির কর্তৃপক্ষের ঠিক করে দেওয়া পোশাকের বাইরে অন্যকিছু পরিধান করে মন্দিরে প্রবেশ করা যাবে না।

আরও পড়ুন : গেরুয়া শিবিরের চিন্তা বাড়িয়ে ফের বেসুরো নীতিশ, প্রশ্ন তুললেন এনআরসির যৌক্তিকতা নিয়ে

কাশী বিশ্বনাথ মন্দির পরিষদের তরফে জানানো হয়েছে, এখন থেকে শিবলিঙ্গ স্পর্শ করতে গেলে পুরুষদের পরতে হবে ধুতি-কুর্তা, আর মেয়েদের পরতে হবে শাড়ি। প্যান্ট -শার্ট অথবা জিনস-টপ পরে কেউ যদি মন্দিরে ঢোকেন, তাঁদের নির্দিষ্ট জায়গার পর আর এগোতে দেওয়া হবে না। বিশ্বনাথ দর্শন করতে হবে দূর থেকেই, শিবলিঙ্গ স্পর্শের অধিকার মিলবে না। ভারতীয় ঐতিহ্যের সঙ্গে তাল রেখেই এই নয়া পোশাকবিধি তৈরি হয়েছে। 

দেখুন ভিডিও: সালানপুরে পুড়ে ছাই হল বিজেপির দলীয় কার্যালয়, অভিযোগের আঙ্গুল তৃণমূলের দিকে

কাশীর - বিশ্বনাথ মন্দির পরিষদ জানিয়েছে, শাড়ি ও ধুতি কুর্তা পরে যাঁরা আসবেন না, তাঁরা গর্ভগৃহে প্রবেশ করতে পারবেন নায গর্ভগৃহে ঢুকতে গেলে নতুন পোশাকবিধি মানতেই হবে। তবে কবে থেকে এই বিধিী যার্কর হবে তার নির্দিষ্ট দিন ঘোষণা করেনি মন্দির কর্তৃপক্ষ। শুধু বলা হয়েছে, শীঘ্রই এই নিয়ম কার্যকর হবে। 

কাশী বিদ্বৎ পরিষদ সিদ্ধান্ত নিয়েছে, মঙ্গল আরতি থেকে বেলা ১১টার মধ্যাহ্ন ভোগের সময় পর্যন্ত ভক্তরা কাশী বিশ্বনাথ মন্দিরের শিবলিঙ্গ স্পর্শ করতে পারবেন। কাশী বিশ্বনাথের বর্তমান এই মন্দিরটি ১৭৮০ সালে নির্মাণ করেন মহারানি অহল্যা বাঈ। মহারাজা রণজিৎ সিংহ ১৮৫৩ সালে ১০০০ কেজি খাঁটি সোনি দিয়ে মন্দিরের শইখর মুড়িয়ে দেন। ভগবান শিবের রাজধানী বলা হয় কাশীকে।