বিল মেটাতে অক্ষম। তাই ৮০ বছরের অসুস্থ রোগীরে বেঁখে রাখা হল খাটের সঙ্গে। অমানবিকতার চরম উদাহরণের ছবি ধরা পড়ল বিজেপি শাসিত মধ্যপ্রদেশে। যদিও অভিযোগ অস্বীকার করেছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। তবে ঘটনার রিপোর্ট তলব করেছেন মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ চৌহান। 

মমতার মুখে বঙ্গ আর দিলীপের মুখে পদ্ম, রাজ্যে কি শুরু হল 'মাস্ক রাজনীতি' ...

বিশ্বের ক্রম তালিকায় পঞ্চম স্থানে ভারত, তবে এটাই 'করোনার চূড়া' নয় বলে দাবি বিশেষজ্ঞদের ...

' জাতীয় স্তরে গোষ্ঠী সংক্রমণ পর্যায় যাননি করোনা', আশ্বস্ত করছেন এইমস প্রধান ...

দিন কয়েক অসুস্থ হয়ে এই বৃদ্ধ ভর্তি হয়েছিল শাজাপুর জেলার একটি হাসপাতালে। অসুস্থ বৃদ্ধের মেয়ে জানিয়েছিলেন ভর্তির সময় তাঁরা ৫ হাজার টাকা জমা করেছিলেন। কিন্তু পরবর্তী কালে বিলের অঙ্ক বেড়ে হয়েছিল ১১ হাজার টাকা। তা মেটানো ক্ষমতা ছিল না ছিল না বলেই হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে জানান হয়েছিল। তারপরই ৮০ বছরের অসুস্থ বৃদ্ধকে দড়ি দিয়ে হাসপাতালের শয্যার সঙ্গে বেঁধে রাখা হয় বলে অভিযোগ তোলা হয়েছে। 

যদিও অভিযোগ অস্বীকার করেছেন হাসপতাল কর্তৃপক্ষ। হাসপাতালের তরফে জানান হয়েছে ওই ব্যক্তির খিঁচুনি ছিল। তাই যেকোনও সময় খাট থেকে পড়ে যাওয়ার আশঙ্কা ছিল। দুর্ঘটনা এড়াতেই খাটের সঙ্গে বেঁধে রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হাসপাতালের পক্ষে থেকে এও জানান হয়েছিল আর্থিকভাবে পিছিয়ে পড়া ওই ব্যক্তির বিষয়টি যথেষ্ট মানবিকতার সঙ্গেই দেখা হচ্ছিল। বিল মকুব করে দেওয়ার সিদ্ধান্তও নেওয়া হয়েছিল। তবে পুরো ঘটনার তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজসিং চৌহান। শাজাপুর জেলা প্রশাসনও ঘটনার রিপোর্ট তলব করেছে।