ছোটবেলায় একট গল্প আমরা অনেকেই পড়েছি। বনে বাঘের সঙ্গে দেখা হয়েছিল দুই বন্ধুর। একজন গাছে উঠে প্রাণ বাঁচিয়েছিল, আর অপরজন জানতো না গাছে চড়তে। সে মরার মত পড়ে থেকে নিজের প্রাণ বাঁচিয়েছিল। সেই গল্পকেই একেবারে বাস্তবে ফিরিয়ে নিয়ে এলেন মহারাষ্ট্রের তুমসির তহসিল গ্রামের এক যুবক।

আরও পড়ুন: ইরানের রাজপথে যাত্রী নিয়ে নেমে এল আস্ত একটি বিমান, নেট দুনিয়ায় ভাইরাল হল ভিডিও

ভান্ডার জেলার তুমসির তহসিল গ্রামে হঠাৎ করেই ঘটেছিল বাঘের আগমন। বাঘ ঢুকেছে এই খবর ঝড়ের গতিতে ছড়িয়ে পরে চারপাশে। এর মধ্যেই মাঠের মধ্যে বাঘ মামার সঙ্গে সাক্ষাৎ হয় এক যুবকের। সামনে হিংস্র প্রাণীকে দেখে তখন আত্মারাম খাঁচা ছাড়া যুবকের। কিন্তু ছোটবেলায় শোনা দুই বন্ধুর সেই গল্পকেই প্রাণ বাঁচাতে ব্যবহার করলেন যুবক।

আরও পড়ুন: ক্লাসরুমে চুম্বনে মত্ত দ্বাদশ শ্রেণির দুই পড়ুয়া, ভিডিও ভাইরাল হতেই তদন্তের নির্দেশ

বাঘকে দেখেই মরার মত পড়ে থাকে ওই যুবক। তবে শিকার ছাড়তে নারাজ বাঘ বাবাজীও। যুবকের বুকে পা রেখে দাঁড়িয়ে থাকে সেও। কিন্তু শিকারের মধ্যে প্রাণের স্পন্দন না পেয়ে শেষপর্যন্ত ফিরেই যেতে হয় বাঘ মামাকে। আর বাঘবাবাজী চলে যেতেই উঠে বসেন ওই যুবক।

 

 

সম্প্রতি নিজের ট্যুইটার অ্যাকাউন্টে এই ভিডিও শেয়ার করেছেন আইএফএস অফিসার প্রবীণ কাসওয়ান। আর হাড়হিম করা ভিডিওটি প্রকাশ্যে আসতেই সেটি ভাইরাল হতে খুব বেশি সময় লাগেনি। 

ট্যুইটারে পোস্ট হওয়া অন্য একটি ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, বাঘটিকে  তাড়াতে গ্রামের মানুষ জমায়েত হতে শুরু করে। আর তা দেখে বাঘ মামা নিজেই ঘাবড়ে গিয়েছিল।

 

 

বাঘবাবাজী কোথায়া পালাবে তা বুঝে উঠতে পারছিল না। আর সেই ভিডিও ভাইরাল হতেও খুব বেশি সময় লাগেনি।