Asianet News BanglaAsianet News Bangla

মণিপুরে ভূমিধসে থমকে গেল নদীর গতিপথ, আরও বড় দুর্যোগের আশঙ্কা


ভূমিধসে লন্ডভন্ড মণিপুরের বিস্তীর্ণ এলাকা। নোনি জেলায় ভূমিধসে কমপক্ষে ৭ জন নিহত হয়েছে। ১৩ জন গুরুতর আহত হয়েছে। 

Manipur landslide at mega rail project 7 dead 23 missing bsm
Author
Kolkata, First Published Jun 30, 2022, 4:55 PM IST

ভূমিধসে লন্ডভন্ড মণিপুরের বিস্তীর্ণ এলাকা। নোনি জেলায় ভূমিধসে কমপক্ষে ৭ জন নিহত হয়েছে। ১৩ জন গুরুতর আহত হয়েছে। এখনও পর্যন্ত নিখোঁজ রয়েছে ২৩ জন। উদ্ধারকাজ শুরু করেছে সেনা বাহিনী।  স্থানীয়রা জানিয়েছেন ব্যাপক ভূমিধসের কারণে স্তব্ধ হয়ে গেছে স্থানীয় একটি নদীর প্রবাহ। 

মণিপুরের ভূমিধসের বিপদ এখনও পর্যন্ত শেষ হয়নি। কারণ  নদীর প্রবাহ বন্ধ হয়ে যাওয়ার তৈরি হয়েছে একটি জলাশয়। আর ধ্বংসস্তূপ সরালে বা আরও জলের চাপ বাড়লে স্থানীয়ভাবে বন্যা পরিস্থিতি তৈরি হতে পারে বলে আশঙ্কা করছে স্থানীয় বাসিন্দারা। স্থানীয় কর্মকর্তারা জানিয়েছে নিহতদের অনেকেই আঞ্চলিক সেনা বাহিনীর সদস্য। যারা একটি রেললাইন নির্মাণের স্থানে পাহারাদারীর কাজ করছিল। 

ইজেই নদীর গতিপথ বাধা পেয়েছে ভূমিধসের কারণে। নদীর জল স্থানীয় একটি বাঁধের দিকে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে। পরিস্থিতির অবনতি হয়ে নিন্মাঞ্চালতে প্লাবনের আশঙ্কা আরও বাড়বে। নোনি জেলার বাসিন্দাদের ইতিমধ্যেই সতর্ক করা হয়েছে। স্থানীয়দের নদীর তীর থেকে সরে যাওয়ারও নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে। 

জেলা প্রশাসন জানিয়েছেন উদ্ধার ও ত্রাণ কাজ শুরু হয়েছে। ভারতীয় সেনা বাহিনী, জাতীয় উদ্ধারকারী বাহিনী ও রাজ্য দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা সংস্থার উদ্ধারকাজে হাত লাগিয়েছে। রাজ্য প্রশাসন তিনটি সংস্থার সঙ্গেও তৎপরতার সঙ্গে যোগাযোগ রাখছে। অন্যদিকে আবহাওয়া দফতর জানিয়েছেন আগামী ২৪ ঘণ্টায় মণিপুরের বিস্তীর্ণ এলাকায় প্রবল বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। আর সেই কারণে পরিস্থিতি আরও খারাপ হতে পারে বলেও আশঙ্কা করা হয়েছে। বিষ্টির জন্য স্থানীয় বাসিন্দাদের সতর্ক থাকতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। 

মণিপুরের মুখ্যমন্ত্রী এন বীরেন সিং জরুরি বৈঠক করেছেন। সূত্রের খবর তিনি রেলমন্ত্রী অশ্বিনী বৈষ্ণর সঙ্গে বৈঠক করেছেন। "আজ টুপুলে ভূমিধসের পরিস্থিতি মূল্যায়ন করার জন্য একটি জরুরী বৈঠক ডাকা হয়েছে। অনুসন্ধান ও উদ্ধার অভিযান ইতিমধ্যেই চলছে। আসুন আজকে আমাদের প্রার্থনায় রাখি। অপারেশনে সহায়তা করার জন্য ডাক্তারদের সাথে অ্যাম্বুলেন্সও পাঠানো হয়েছে। জেলা প্রশাসন হেল্পলাইন চালু করেছে।

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios