নোবেল জয়ের পরই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী তাঁকে অভিনন্দন জানিয়েছিলেন। কিন্তু ভারতীয় অর্থনীতি নিয়ে প্রশ্ন করতেই নরেন্দ্র মোদী সরকারে নীতির বিরুদ্ধে আগল খুলে দিয়েছিলেন নোবেলজয়ী বাঙালি অর্থনীতিবিদ অভিজিৎ বিনায়ক বন্দোপাধ্যায়। এমনকী আর কোনও যোগ্য নেতা না থাকাতে ফাঁকতালে মোদী নির্বাচনে জয়ী হয়েছেন, এমন মন্তব্যও করেছেন। মঙ্গলবার নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে সাক্ষাতের পর অবশ্য মোদী বিরোধী বক্তব্য এড়িয়েই গেলেন তিনি।

এদিন প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরেই তাঁর সঙ্গে সাক্ষাত করেন অভিজিৎ। সেখান থেকে বেরিয়ে জানিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী 'ইউনিক'। ভারত সরকারকে উচ্চশ্রেণীর নিয়ন্ত্রণ থেকে, আমলাতন্ত্র থেকে মুক্ত করতে মোদীর ভাবনার তিনি প্রশংসা করেন। জানান, ভারতের এমন আমলাদের চাই, যাঁরা সমাজের সঙ্গে মিলে মিশে থেকে, সমাজের বাস্তবতা জেনে কাজ করবে।

আরও দেখুন - আমেরিকান জামাই, তাই নোবেল, অভিজিৎকে নিয়ে নিঃসংশয় দিলীপ, দেখুন ভিডিও

'প্রধানমন্ত্রী মোদী ইউনিক', সাক্ষাত থেকে বেরিয়েই ঘোষণা নোবেলজয়ী অভিজিৎ-এর

আরও পড়ুুন - নোবেলজয়ীর সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর সাক্ষাত, কী কথা হল মোদী-অভিজিতে, চলছে জল্পনা

তারপর সাংবাদিক সম্মেলনে পৌঁছতেই ফের ভারতীয় অর্থনীতি নিয়ে প্রশ্নের মুখোমুখি হতে হয় তাঁকে। এদিন কিন্তু 'মোদী-বিরোধী' একটি কথাও তাঁর মুখ দিয়ে বলাতে পারেননি সাংবাদিকরা প্রশ্ন করতে যেতেই হাত ও মাথা নাড়িয়ে তিনি বলেন এি বিষয়ে কোনও প্রশ্নের উত্তর তিনি দেবেন না।

তিনি জানান, সাংবাদিকরা কীভাবে তাঁকে 'অ্যান্টি মোদী থিংস' বা 'মোদী-বিরোধী' মন্তব্য করা জন্য ফাঁদে ফেলছে তাই নিয়ে মজা করা দিয়েই প্রধানমন্ত্রী তাঁর সঙ্গে কথা শুরু করেছিলেন। এরপরই নোবেল জয়ী মজা করে বলেন, এর থেকেই বোঝা যাচ্ছে প্রধানমন্ত্রীর টিভি দেখেন, খবরের কাগজ পড়েন। সাংবাদিকদের উপর কড়া নজর রাখেন। সাংবাদিকরা কী করার তচেষ্টা করছেন তাও তিনি জানেন। তাই সাংবাদিকদের তাঁকে এই ফাঁদে ফেলাীর চেষ্টা বন্ধ করা উচিত।