সোমবার ৮ জুন থেকে আনলক ১ -এর প্রথম দফায় পা দিল ভারত। এদিন থেকে দেশের সব ধর্মীয় স্থান খুলো দেওয়া হয়েছে। খুলেছে বেশ কিছু অফিস, শপিং মল, রেস্তোরাঁও। কিন্তু, এরমধ্য়েই গোটা দেশের একেবারে উল্টোপথে হাঁটল উত্তর-পূর্ব ভারতের রাজ্য মিজোরাম। আনলক ১'এর প্রথম দিনই এই রাজ্যের সরকার ক্রমবর্ধমান করোনাভাইরাস রোগীর পরিপ্রেক্ষিতে রাজ্যে সম্পূর্ণ লকডাউন জারি করার সিদ্ধান্ত নিল।

এক বিবৃতিতে, মিজোরাম রাজ্য সরকার বলেছে, ৯ জুন থেকে দুই সপ্তাহের জন্য মিজোরামে 'সম্পূর্ণ লকডাউন' জারি থাকবে। সাধারণত লকডাউনে যেমন বাজার টাজারে যাওয়া সম্ভব, সম্পূর্ণ লকডাউনে তাও সম্ভব হয় না। বস্তুত, বাড়ি থেকেই বাইরে বের হওয়ার অনুমতি দেওয়া হয় না। মিজোরামে কতটা কড়াকড়ি করা হবে, সেই বিষয়ে পরে নির্দেশিকা জারি করা হবে বলে জানানো হয়েছে। তবে মিজোরামের তথ্য ও জনসংযোগ দপ্তর থেকে বলা হয়েছে, এদিন মধ্যরাত থেকে আগামী ২ সপ্তাহ চলবে এই সম্পূর্ণ লকডাউন।

তবে আশ্চর্যের বিষয় হল এই রাজ্যে এখনও পর্যন্ত করোনাভাইরাস রোগীর সংখ্যা মাত্র ৩৪, যা সারা দেশের নিরিখে একেবারেই গৌন। এখনও অবধি একজনের ও মৃত্যু হয়নি করোনাভাইরাস জনিত কারণে। আক্রান্ত ৩৪ জনের মধ্যে একজন আবার সুস্থও হয়ে উঠেছেন। গত ১৬ মার্চ নেদারল্যান্ডস থেকে ফেরা এক ব্যক্তির দেহে করোনার উপস্থিতি মিলেছিল। তিনি সুস্থ হয়ে যাওয়ার পর দীর্ঘদিন করোনামুক্ত ছিল মিজোরাম। পরিযায়ী শ্রমিকরা রাজ্যে ফিরতে শুরু করার পর ফের করোনা রোগীর সংখ্যা বাড়ছে।

এই অবস্থায় এই আক্রান্তদের সুস্থ না হয়ে ওঠা পর্যন্ত সম্পূর্ণ লকডাউন রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।