মন কি বাত অনুষ্ঠানে এবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী দেশবাসীকে ধন্যবাদ জানালেন। চলতি মাসের শুরুর দিকে ঐতিহাসিক অযোদ্ধা মামলার রায় দেয় সুপ্রিম কোর্ট।  রায় দানের পর ভারত জুড়ে অশান্তির বাতাবরণ সৃষ্টি হতে পারে বলে আশঙ্কা করা হয়েছিল। কিন্তু দেশবাসী  যে ধৈর্য, সংযম এবং বুদ্ধি বিবেচনা করে পরিস্থিতি সামাল দিয়েছেন, সেই কারণে প্রধানমন্ত্রী সমগ্র দেশবাসীকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন।  তিনি মন্তব্য করেছেন, এই রায়ের তপর দেশবাসী একটা নতুন দিকে এগোবে। 

রেডিওতে মন কি বাত অনুষ্ঠানে ৫৯ তম এপিসোডে  প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেছেন,  আমার আশা ভারত শান্তি, ঐক্য, চেতনা ও সদিচ্ছাকে  মূলধন করে ভবিষ্যতে আরও অনেক দূর এগিয়ে যাবেন। দীপাবলির সময় মন কি বাতের অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে নরেন্দ্র মোদী ২০১০ সালে অযোধ্যার বিতর্কিত জমি মামলায় এলাহাবাদ হাইকোর্টের রায় ও পরবর্তী ভারতের পরিস্থিতিকে স্মরণ করান। তিনি জানান, সেই সময়, অশান্তির আশঙ্কা থাকলেও প্রতিটি ভারতবাসী ধৈর্য ও সংযমের নিদর্শন দিয়েছিলেন। যার ফলে ভারতে সেই সময় কোনও অশান্তি হয়নি।  তিনি মন্তব্য করেছেন, এইবারও ভারতেরর ১৩০ কোটি ভারতীয় একইভাবে সুপ্রিম কোর্টের রায়কে সম্মান করেছেন। জাতীয় গুরুত্ব বুঝে কোনও অশান্তির বাতাবরণ সৃষ্টি করতে দেননি।   এর থেকেই প্রমাণিত হয় ভারত শান্তি ও ঐক্যের পথে যেতে বেশি আগ্রহী।  সুপ্রিম কোর্টের  অযোধ্যার বিতর্কিত জমি মামলার রায়কে স্বাগত জানিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। 

সুপ্রিম কোর্টে অযোধ্যা মামলার রায়ে বিতর্কিত ২.৭৭ একর জমি শেষ পর্যন্ত রামলালাকেই দেওয়া হয়।   ওই বিতর্কিত জমিতে রামমন্দির তৈরি হবে।  মন্দিরর তৈরির জন্য ট্রাস্ট গঠনে সরকার পক্ষকে তিন মাস সময় দেওয়া হয়েছে। সুন্নি ওয়াকফ বোর্ডকে  পাঁচ একর জমি মসজিদ নির্মাণের জন্য দেওয়া হয়েছে। এই রায় মেনে নিয়েছে সুন্নি ওয়াকফ বোর্ড। তারা জানিয়েছে, নতুন জমিতে আরও বড় আকারে মসজিদ নির্মাণ গঠন করা হবে।  সুপ্রিম কোর্টের রায়ে জানানো হয়েছে, আর্কিওলজিক্যাল সার্ভে অফ ইন্ডিয়া খননে মসজিদের আগে অন্য কোনও স্থাপত্যের প্রমাণ পাওয়া গিয়েছে।