করোনাভাইরাসের সংক্রমণের আশঙ্কা থেকে নিট ও জেইই পরীক্ষা পিছিয়ে দেওয়ার আর্জি জানিয়েছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বুধবার সনিয়া গান্ধীর নেতৃত্বে ভার্চুয়াল বৈঠকে ছাত্র-ছাত্রীদের স্বার্থের কথা বিবেচনা করে সুপ্রিম কোর্টের যাওয়ার আর্জিও জানিয়েছিলেন মমতা। তাঁর আবেদন মেনে ইতিমধ্যেই বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলি কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে ঘুঁটি সাজাতে ব্যস্ত। আর বৃহস্পতিবারই দেড়শো জনেরও বেশি শিক্ষাবিদ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে চিঠি লিখে পরীক্ষা না পিছিয়ে দেওয়ার আর্জি জানিয়েছেন। অন্যদিকে ইতিমধ্যেই নিটের অ্যাডমিট কার্ড ডাউনলোড করাও শুরু হয়েগেছে। 

আর প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে দেশের ও বিদেশের  দেড়শোরও বেশি শিক্ষাবিদ চিঠি লিখেছেন। শিক্ষাবিদরা চিঠি লিখে পরীক্ষা না পিছিয়ে দিতে আর্জি জানিয়েছেন। চিঠিতে তাঁদের মূল বক্তব্যই হল রাজনৈতিক অ্যাজেন্ডা পূরণ করার জন্য দেশের পডু়য়াদের ভবিষ্যৎ নিয়ে রাজনীতি করা হচ্ছে। চিঠিতে তাঁরা বলেছেন, ছাত্র ও যুব সমাজ দেশের ভবিষ্যৎ। কিন্তু করোনাভাইরাসের সংক্রমণের কারণে যে মহামারি তৈরি হয়েছে তাদের তাঁদের কেরিয়ারে অনিশ্চয়তার মেঘ জমতে শুরু করেছে। এই পরিস্থিতিতে ডাক্তারি ও ইঞ্জিনিয়ারিং-এ ভর্তি ও ক্লাস শুরু নিয়ে যে অনিশ্চয়তাগুলি রয়েছে তা দ্রুত দূর করা প্রয়োজন। 

বিধবার মাথা মুড়িয়ে জুতোর মালা পরিয়ে ঘোরানো হল গ্রামে, কেন এই নির্মম আচরণ যোগীর রাজ্যে ...
বুধবারই জাতীয় পরীক্ষা সংস্থার পক্ষ থেকে জানান হয়েছিল নিট পরীক্ষার জন্য অ্যাডমিট কার্ড প্রকাশ করা হবে সংস্থার নির্দিষ্ট ওয়েবসাইটে। বৃহস্পতিবার প্রকাশিত একটি রিপোর্টে বলা হয়েছে প্রথম পাঁচ ঘণ্টার মধ্যে ৬ লক্ষেরও বেশি অ্যাডমিট কার্ড ডাউন লোড করা হয়েছে। চলতি বছর সর্বভারতীয় ডাক্তারির জন্য প্রবেশিকা পরীক্ষা দিচ্ছেন ১৫.৯৭ লক্ষ পড়ুয়া। সবমিলিয়ে এদিন বেলা ১২টা পর্যন্ত ৬.৮৪ লক্ষ পরীক্ষার্থী অ্যাডমিট কার্ড ডাউনলোড করেছেন। 

ওজোন গ্যাসে প্রাকৃতিকভাবে ধ্বংস করবে করোনার জীবাণু, নিদান দিল জাপানের বিজ্ঞানীরা ..

করোনার প্রতিষেধকের জন্য কি অপেক্ষা শেষ হচ্ছে, সৌম্যা স্বামীনাথনের কথায় আবারও শুরু জল্পনার ...

আগামী ১৩ সেপ্টেম্বর নিট পরীক্ষা গ্রহণ করা হবে। তবে করোনভাইরাসের সংক্রমণের কারণে এর আগেও বেশ কয়েক বার পরীক্ষা স্থগিত রাখা হয়েছে। জেইই মেইন পরীক্ষা গ্রহণ করা হবে ১-৬ সেপ্টেম্বরের মধ্যে।