ভারতে কোভিডের নতুন স্ট্রেন শুরু। আশঙ্কা শেষে সত্যি হল। বিজয়ওয়াড়ায় লন্ডন ফেরত এক মহিলার শরীরে মিলেছে নতুন স্ট্রেন। মেরি ইউনফ্রেড আন নামের ওই মহিলা পেশায় এক স্কুল শিক্ষক। পূর্ব গোদাবরী এলাকার রাজামুন্দ্রির বাসিন্দা তিনি। তবে আতঙ্ক বেড়েছে তিনি কোয়ারেন্টিন কেন্দ্র থেকে পালিয়ে সোজা সাধারণ মানুষের সঙ্গে সওয়ারি হয়েছেন ট্রেনে।

 

আরও পড়ুন, তীরের বেগে সংক্রমণ কমছে কলকাতায়, জিনের গঠন বদলানোয় করোনা আক্রান্ত হলে আদৌ ধরা পড়বে কি

 

 


উল্লেখ্য, ২১ ডিসেম্বর তিনি লন্ডন থেকে দিল্লি বিমানবন্দর থেকে এসেছিলেন। সেখানেই তার করোনা পরীক্ষা করা হয়। সেই নুমনা পরীক্ষাতেই এই নতুন স্ট্রেনের অস্তিত্ব ধরা পড়ে। এরপরেই তাঁকে কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয়। অভিযোগ, সেখান থেকেই সুযোগ পেতেই  পালিয়ে সোজা ওঠে পাবলিক ট্রেনে। এরপরেই খবর জানতে পেরে নড়েচড়ে বসে দিল্লি। পূর্ব গোদাবরী প্রশাসনকে সতর্কও করে দিল্লি। জানানো হয় রাজামুন্দ্রির বাসিন্দা ওই ফেরার মহিলা। অবশেষে ঘাম ছোটানোর পর ওই মহিলার সন্ধান মেলে।

আরও পড়ুন, কোভিড মোকাবিলায় মিলল স্কচ অ্যাওয়ার্ড, স্বীকৃতি পেল রাজ্য স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ দফতর

 

 


অপরদিকে,  মেরি ইউনফ্রেড আন নামের ওই মহিলা  কোয়ারেন্টিন কেন্দ্র থেকে পালিয়ে  সোজা  পাবলিক ট্রেনে ওঠায় সংস্পর্শে আসা যাত্রীদেরও সংক্রামিত হওয়ার সম্ভবনা বেড়ে গেল। সেই ট্রেনে ছিলেন ওই মহিলার ছেলেও। উল্লেখ্য, পশ্চিমবঙ্গে করোনা শুরুর দিকে লন্ডন ফেরত আমলার ছেলের ঘটনাকেও হার মানাল এই মহিলা। এদিকে ব্রিটেনের সাম্প্রতিক কালের অবস্থা সকলের জানা। নতুন করে সেখানে কীভাবে করোনা সংক্রমণ শুরু হয়েছে। তারই মধ্য়ে বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন,  করোনার জিনের গঠন  তা আরটি-পিসিআর পরীক্ষাতেও না ধরা পড়ার সম্ভবনা তৈরি হতে পারে। যার জন্য রীতিমতো আরও সতর্ক হওয়া প্রয়োজন।


আরও পড়ুন, বিশ্ব-বাজারে বিকোবে শান্তিকেতনের শিল্পীদের কাজ, সোশ্যাল মিডিয়ার সাহায্য নিতে আহ্বান মোদীর