কোভিড পরিস্থিতি মোকাবিলায় অসামান্য ভূমিকা পালনের জন্য স্কচ অ্যাওয়ার্ড গোল্ডে ভূষিত রাজ্য স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ দফতর। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নিয়ন্ত্রণাধীন এই দপ্তরের গ্রিভান্স রিড্রেসল সেলের প্রচেষ্টার ফলেই মিলল স্বীকৃতি।

আরও পড়ুন, তীরের বেগে সংক্রমণ কমছে কলকাতায়, জিনের গঠন বদলানোয় করোনা আক্রান্ত হলে আদৌ ধরা পড়বে কি

 

 


মার্চ মাস থেকে বিশ্বজুড়ে ধ্বংসলীলা চালিয়েছে করোনাভাইরাস। প্রথম দফায় দেশজুড়ে লকডাউন জারি করা হয়। ধীরে ধীরে স্বাভাবিক ছন্দে ফেরানোর জন্য আনলক পর্যায় শুরু হয়। শুরুদিকে  অজানা ভাইরাস হানায় সকলেই অনভিজ্ঞ। চাপের মুখে পড়ে দেশ তথা বাংলার প্রশাসনিক কর্তাব্যক্তিরা। তাই দীর্ঘ লকডাউনে প্রত্যেকেরই লক্ষ ছিল কীভাবে আবার স্বাভাবিক ছন্দে ফিরিয়ে আনা যায়। চেষ্টা চালান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্য়োপাধ্য়ায়। পরিবর্তে তাঁর নির্দেশ মতো রাজ্য প্রশাসনিক কর্তাব্যাক্তি এবং স্বাস্থ্য এবং পরিবার কল্য়াণ দফরের কাজ শুরু হয়।

আরও পড়ুন, বিশ্ব-বাজারে বিকোবে শান্তিকেতনের শিল্পীদের কাজ, সোশ্যাল মিডিয়ার সাহায্য নিতে আহ্বান মোদীর

 

 


প্রথম দফার শুরু হয় কনট্য়াক্ট ট্রেসিং-এর কাজ। ভিনরাজ্য থেকে কারা এ রাজ্য়ে এসেছেন। করোনা সম্পর্কে সকলকে সচেতন করার কাজও শুরু হয়। প্রথমদিকে করোনার উপসর্গ দেখা দিলে নমুনা পরীক্ষা করা ভয় পাচ্ছিলেন অনেকেই। তাঁদের সাহস জোগানোর কাজ করে স্বাস্থ্য দফতর। মঙ্গলবার পর্যন্ত ৪০ হাজারের বেশি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। তবে উল্টোদিকে আক্রান্তের সঙ্গে দুর্ব্যবহারের অভিযোগও উঠে এসেছে। এক্ষেত্রে সক্রিয় ভূমিকা নেয় স্বাস্থ্য দফতর।