পৃথিবীতে এমন অনেক মানুষ রয়েছে যাদের কাছে নিজের কাজটাই সবার আগে।  ব্যক্তিগত জীবনের নানা ওঠাপড়া ও দায়িত্বকে পেছনে ভেলে নিজের কর্তব্যেই অবিচল থাকেন এই ধরণের মানুষরা। তেমনি একজন নর্থ ব্লকের আধিকারিক কুলদীপ কুমার শর্মা।

আরও পড়ুন: গুলিচালানোর আগে লাইভ স্ট্রিম, জামিয়াকাণ্ডে বন্ধ হল অভিযুক্তের ফেসবুক অ্যাকাউন্ট

শনিবার পেশ হতে চলেছে দেশের সাধারণ বাজেট। তাই এখন অর্থমন্ত্রকের ব্যস্ততা তুঙ্গে। বাজেটের নথিপত্র মুদ্রণের কাজ চলছে। যার দায়িত্বে রয়েছেন ডেপুটি ম্যানেজার (প্রেস) কুলদীপ কুমার শর্মা। তাঁর কাজ ছাপার কাজ পর্যবেক্ষণ  করা। অর্থমন্ত্রকের বাজেটের নথি অত্যন্ত গোপনীয়। সংসদে বাজেট পেশের আগে তা কোনোভাবেই ফাঁস করা যাবে না। তাই বাবার মৃত্যু খবর পেয়েও কর্তব্যে অবিচল থাকলেন নর্থব্লকের এই আধিকারিক। তাঁর এই দৃঢ়চেতা মানসিকতার জন্য অর্থমন্ত্রকের প্রশংসাও কুড়িয়েছেন এই কর্মবীর আধিকারিক।

 

গত ২৬ জানুয়ারি পিতৃবিয়োগ ঘটে কুলদীপ কুমার শর্মার। কিন্তু নিজের কর্তব্যে অবিচল থেকে পারিবারিক শোক উপেক্ষা করে এক মিনিটের জন্যেও ছাপাখানা ছেড়ে যাননি অর্থমন্ত্রকের এই আধিকারিক।

আরও পড়ুন: কাশ্মীরে ফের পুলিশের উপর হামলা, পাল্টা গুলিতে মৃত্যু ৩ জঙ্গির

অর্থমন্ত্রকের বাজেটের নথি অত্যন্ত গোপনীয়। তাই নথি মুদ্রণের কাজ যারা করেণ তাঁদের এই সময়ে নর্থ ব্লকের বাইরে যাওয়ার অনুমতি দেওয়া হয় না। টানা কয়েকদিন  মন্ত্রকেই থাকতে হয় তাঁদের। কর্মীদের থাকা-খাওয়ার ব্যবস্থাও এই সময় হয় নর্থ ব্লকে। পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে দেখা করতে পারেন না তারা। তবে বাবার মৃত্যু সংবাদের মত ঘটনায় অনায়াসেই বাড়ি ফিরতে পারতেন কুলদীপ। কিন্তু, তিনি তা না করে সরকারি আধিকারিক হিসাবে নিজের দায়িত্ব পালন করে গেছেন। আর তাঁর এই কর্তব্যবোধকে কুর্ণিশ জানিয়ে ট্যুইট করেছেন স্বয়ং দেশের অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ। কুলদীপের এই দায়িত্ববোধকে স্যালুট জানাচ্ছে নেটদুনিয়াও।