বিজেপি সদস্য হয়েছেন ইমরান খান। একা পাক প্রধানমন্ত্রী কেন, তালিকায় রয়েছেন ধর্ষণের অভিযোগে দোষী সাব্যস্ত জেলবন্দি গুরমিত রাম রহিম, ধর্ষণে অভিযুক্ত আশারাম বাপুও। 

এমন খবর শুনলে চমকে উঠবেন যে কেউ। আর সঙ্গে যদি এমন দাবির স্বপক্ষে সচিত্র পরিচয়পত্র দেখানো হয়, তা হলে তো কথাই নেই। প্রধানমন্ত্রী এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজ্য গুজরাটে অবশ্য এমন অবস্থা হয়েছিল অনেকেরই। কারণ ইমরান খান, আশারাম বাপু, রাম রহিমদের ভুয়ো বিজেপি-র সদস্যপদ নেওয়ার পরিচয় পত্র তৈরি করে সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে দিয়েছিল এক ব্যক্তি। 

অভিযুক্ত ওই ব্যক্তির নাম গোলাম ফরিদ শেখ। চল্লিশ বছর বয়সি গোলাম ফরিদ আহমেদাবাদের শাহপুর এলাকার বাসিন্দা। 

অভিযোগ ইমরান খান, রাম রহিমরা বিজেপি-তে যোগ দিয়েছেন বলে দাবি করে তাদের ছবি দিয়ে ভুয়ো পরিচয় পত্র বানিয়েছিল গোলাম। বিষয়টি নজরে আসতেই পুলিশে অভিযোগ জানায় স্থানীয় বিজেপি নেতৃত্ব। আহমেদাবাদ শহরের বিজেপি-র সাধারণ সম্পাদক কমলেশ পটেলের অভিযোগ, বিজেপি-র ভাবমূর্তি খারাপ করতেই উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে ইমরান খান, রাম রহিমদের ছবি দেওয়া বিজেপি-র নকল পরিচয় পত্র হোয়াটসঅ্যাপে ছড়িয়ে দিয়েছিল অভিযুক্ত। 

এর পরেই শনিবার আহমেদাবাদ পুলিশের সাইবার অপরাধ দমন শাখা ওই ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে। ততক্ষণে অবশ্য তার কীর্তি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে গিয়েছে।