স্বাধীনতা দিবসের আগে উপত্যকার শান্তি বিঘ্নিত করতে সক্রিয় পাকিস্তান। শুধু সরকারের পক্ষ থেকে গরম গরম ভারত বিরোধী বিবৃতি দেওয়াই নয়, রীতিমতো খাইয়ে পরিয়ে জঙ্গিদের এই পারে পাঠাচ্ছে পাক সরকার। সম্প্রতি জম্মু ও কাশ্মীরের পুঞ্চ জেলায় নিয়ন্ত্রণ রেখা বরাবর এই রকমই একটি প্রচেষ্টা ভেস্তে দিয়েছে ভারতীয় সেনাবাহিনী। আর তাতেই সরাসরি পাক সরকারের সঙ্গে জঙ্গিদের যোগাযোগের প্রমাণ মিলেছে বলে রবিবার সেনার তরফ থেকে দাবি করা হল।

জম্মুর প্রতিরক্ষা বিভাগের জনসংযোগ আধিকারিক লেফটেন্যান্ট কর্নেল দেবেন্দ্র আনন্দ জানিয়েছেন, শুক্রবার কৃষ্ণ ঘাটি সেক্টরে এই অনুপ্রবেশের চেষ্টা চালিয়েছিল পাক জঙ্গিদের একটি দল। ওই এলাকায় আগে থেকেই সতর্ক ছিল সেনা। সেনার টহলদার বাহিনী জঙ্গিদের দেখতে পেয়েই তাদের বাধা দেয়। শুরু হয়েছিল গুলির লড়াই। আর তাতে অন্তত একজন জঙ্গি নিহত এবং দু'জন গুরুতর আহত হয়েছে বলে দাবি করেছে  ভারতীয় সেনা।

লেফটেন্যান্ট কর্নেল দেবেন্দ্র আনন্দ আরও জানিয়েছেন অভিযানের শেষে ওই এলাকায় তল্লাশি করতে গিয়ে দেখা যায় সন্ত্রাসবাদীরা মৃত জঙ্গির দেহটি ঘটনাস্থল থেকে টেনে নিয়ে গিয়েছে। তবে ঘটনাস্থল থেকে একটি একে-৪৭ রাইফেল, দুটি একে ৪৭ রাইফেলের ম্যাগাজিন এবং বেশ কিছু প্যাকেট করা খাবার দাবার পাওয়া গিয়েছে। খাবার ও অন্যান্য বেশ কিছু সামগ্রীর উপরে পাকিস্তান সরকারের চিহ্ন মিলেছে। যা থেকে জম্মু ও কাশ্মীরে সন্ত্রাসবাদী কার্যকলাপে পাকিস্তানের অর্থায়নের স্পষ্ট প্রমাণ পাওয়া গিয়েছে।