মাওবাদী যোগ থাকার অভিযোগে গ্রেফতার করা হলো ওসমানিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের এক অধ্যাপককে। ধৃতের বাড়ি থেকে মাওবাদীদের বেশ কিছু নথি এবং বই উদ্ধার করেছে পুলিশ। উদ্ধার করা হয়েছে বেশ কিছু ইলেক্ট্রনিক সরঞ্জামও। 

ধৃত ওই অধ্যাপকের নাম সি কালিম। তিনি ওসমানিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের তেলুগুর অ্যাসোসিয়েট প্রফেসর। ২০১৫ সালে মুলুগু থানায় দায়ের হওয়া একটি অভিযোগের ভিত্তিতে এই অধ্যাপককে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে খবর। ওই মামলায় অভিযুক্তের বিরুদ্ধে ইউএপিএ আইনে মামলা করা হয়েছিল। 

সিদ্দিপেট- এর পুলিশ কমিশনার ডি জোয়েল বলেন, 'এই মামলাটি তদন্তের ডি জোয়েল ডেভিস বলেন, 'এই মামলাটি বর্তমানে তদন্তাধীন রয়েছেন। আমরা পারিপার্শ্বিক তথ্যপ্রমাণও সংগ্রহ করেছি। সম্প্রতি গোপন সূত্রে আরও বেশ কিছু খবর পেয়েছিলাম আমরা।' ওই পুলিশকর্তার দাবি, আদালতের অনুমতি নিয়েই এ দিন ভোর বেলায় অভিযুক্ত অধ্যাপকের বাড়িতে তল্লাশি করতে যায় পুলিশ। ওই পুলিশকর্তার দাবি, আদালতের নির্দেশই অভিযুক্তের বাড়িতে তল্লাশি চালানো হয়েছে। এছাড়াও তল্লাশিতে বৈদ্যুতিন তথ্যপ্রমাণ ছাড়াও বেশ কিছু নথি পেয়ে সেগুলি বাজেয়াপ্ত করেছে পুলিশ। কমিশনারের দাবি, ওই অধ্যাপককে সঙ্গে যে মাওবাদীদের প্রত্যক্ষ যোগাযোগ ছিল, সে বিষয়ে নিশ্চিত হয়েছিল পুলিশ। 

পুলিশের দাবি, তেলেঙ্গানায় মাওবাদীদের অন্যতম সংগঠন ইউনাই়টেড ফ্রন্ট ভার্টিকাল- এর হয়ে কাজ করতেন ওই অধ্যাপক। মাওবাদীদের অর্থ সংগ্রহ এবং অন্যান্য জিনিসের জন্য তিনি সংযোগকারী হিসেবে কাজ করতেন। সিপিআই নেতা নায়ায়ণ অবশ্য অভিযোগ করেছেন, ইচ্ছাকৃতভাবে বিশিষ্টজনদের  হয়রান করতেই এই পদক্ষেপ করেছে পুলিশ।