সন্ত্রাসবাদের স্নায়ুকেন্দ্র পাকিস্তান, এইটুকু বলেই থামল না ভারত। একই সঙ্গে রাষ্ট্র সংঘে ভারত পাকিস্তানের সন্ত্রাসবাদের রূপরেখাও তুলে ধরল। রাষ্ট্র সংঘে ভারতের রাষ্ট্রদূত টিএস তিরুমূর্তি স্পষ্ট করে বলেছেন পাক মাটিতে রীতিমত লালিতপালিত হচ্ছে জামাত উদ দাওয়াত, লস্কর ই তৈবা,  জইশ ই মহম্মদ, হিজবুল মুজাহিদিনের মত সন্ত্রাসবাদী দলগুলি। 

রাষ্ট্র সংঘে ভারত পাকিস্তানের সন্ত্রাসবাদী কার্যকলাপ তুলে ধরে বলে এটি সুপরিকল্পতি সত্য যে পাকিস্তান সন্ত্রাসবাদের স্নায়ু কেন্দ্র। লস্কর থেকে জইশ আন্তর্জাতিক কালোতালিকাভুক্ত সন্ত্রাসবাদী সংগঠন ও নেতৃত্বরা পাকিস্তানের মাটিকে ব্যবহার করছে একের পর এক নাশকতার ছক কষছে। অধিকাংশ সন্ত্রাসবাসী সংগঠনের মাথাই সেদেশের আশ্রয়ে রয়েছে। -জাতি সংঘের রিপোর্টেও বিদেশে সন্ত্রাসবাদী হামলায় পাকিস্তানের জড়িয়ে থাকার প্রমান পাওয়া গেছে বলেও জানিয়েছেন তিরুমূর্তি। পাশাপাশি ২৬ নম্বর প্রতিবেদনের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন আল কায়দা ও আইসিস জঙ্গিদের তহবিল জাতি সংঘ থেকেই প্রকাশিত হচ্ছে। 

রাম মন্দিরের ভূমি পুজোর আমন্ত্রণপত্রে নিরাপত্তা কোড, মোদীর সঙ্গে মাত্র ৪ জনই থাকবেন মঞ্চে ...

করোনাভাইরাসের উৎসের খোঁজে উহানে গবেষকরা, রহস্যের সমাধানে গবেষণা করছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ...

পাশাপাশি রাষ্ট্র সংঘে ভারত, পাকিস্তানকে নিশানা করে পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের প্রসঙ্গও তুলে এনেছে। ভারত জানিয়ে ইমরান খান নিজে মুখেই স্বীকার করে নিয়েছিলেন পাকিস্তানে প্রায় ৪০ হাজার সন্ত্রাসবাদী ঘাঁটি তৈরি করে বসে রয়েছে। পাশাপাশি জানিয়েছে ১২৬৭ নম্বর কমিটির অধীনে আইএসআই ও আল কায়দা এবং তাদের সহযোগী সংগঠনগুলি প্রতিবেদন জমা দেয়। যা প্রত্যক্ষভাবে প্রমাণ করে সন্ত্রাসবাদী কার্যকলাপের সঙ্গে জড়িত রয়েছে পাকিস্তান। পাকিস্তানের বিরুদ্ধে আক্রামণ আরও বাড়িয়ে দিয়ে ভারত বলছে পাক প্রশাসন ভারতের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বিষয়গুলিকে আন্তর্জাতিক আঙিনায় আনার চেষ্টা করছে। তবে এটা সেদেশের পক্ষে নতুন কিছু নয়। ১৯৬৫ সাল থেকেই পর্যায়ক্রমে লাহোর এই প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু তা এখনও সফল্য পায়নি বলেও কটাক্ষ করেন। 

গজরাজ কি মন কাড়ল চিতাবাঘের, ২৬ সেকেন্ডের ভাইরাল ভিডিও নিয়ে কী বলেছে নেটদুনিয়া ...

করোনা মহামারীর মধ্যেই পাকিস্তান কী ভাবে ভারতকে প্রতি পদক্ষেপে সম্যায় ফেলার চেষ্টা করছে তাও তুলে ধরেন তিনি। তিরুমূর্তি এপ্রিল মাসেই রাষ্ট্র সংঘে ভারতের স্থায়ী প্রতিনিধি হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেন। তিনি সৈয়দ আকবরউদ্দিনের স্থালাভিষিক্ত হবেন।