দিল্লি হিংসায় মৃতদের পরিবারের জন্য ক্ষতিপূরণ ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী আরবিন্দ কেজরিওয়াল। আহতদের চিকিৎসার ব্যাপারে দিয়েছেন সবরকম খরচের আশ্বাস। পাশাপাশি জানিয়ে দিয়েছেন দলের কেউ হিংসায় জড়িত থাকলে তাকে রেয়াত করা হবে না। কিন্তু এসবের মাঝেও বিতর্ক পিছু ছাড়ন না আম আদমি পার্টির। রাজধানীর হিংসায় এবার নাম জড়াল এক আপ নেতার। আম আদমি পার্টির নেতা তাহির হোসেনের বাড়ির ছাদ থেকে মিলল প্রচুর পাথর ও পেট্রোল বোমা। 

 

আরও পড়ুন: হিংসায় নিহতদের পরিবারকে ১০ লক্ষ, ক্ষতিপূরণ ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রী কেজরিওয়ালের

সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিও ও বেশকিছু ছবি ভাইরাল হয়েছে। যেখানে দেখা যাচ্ছে হিংসা উপদ্রুত খাজুরি খাস এলাকায় আপ কাউন্সিলর তাহির হোসেনের বাড়ির ছাদে সার দিয়ে রাখা রয়েছে পেট্রো বোমা। আর একটি ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে , বাড়ির ছাদে উঠে লাঠি হাতে পায়চারি করছেন কয়েকজন। তাদের মধ্যে তাহিরও রয়েছেন। এই ভিডিও শেয়ার করে বিজেপি দাবি তুলেছে, হিংসায় মদত দিচ্ছে আপ নেতা। অবিলম্বে তাঁকে গ্রেফতার করা উচিত। 

 

আরও পড়ুন: এখনি এফআইআর নয় কপিল-অনুরাগদের নামে ,তিরস্কারের পরেই দিল্লি পুলিশকে সময় দিল হাইকোর্ট

এই ভিডিওগুলি নিয়ে আপ নেতার বিরুদ্ধে সরব হয়েছেন বিজেপি নেতা কপিল মিশ্র ও অমিত মালব্য। যদিও পাল্টা একটি ভিডিও বার্তা পোস্ট করে অভিযোগ অস্বীকার করেছেন তাহির। এসবের সঙ্গে তিনি মোটেও যুক্ত নন বলে সাফাই দিয়েছেন তাহির। উল্টে তাঁর দাবি, দাঙ্গাবাজরা তাঁর বাড়ির দখল নিয়ে হিংসা ছড়াচ্ছে। তিনি নিজেই ঘরছাড়া রয়েছেন।

 

 

বুধবার তাহির হোসেনর বাড়ির অদূরেই নর্দমা থেকে গোয়েন্দা আধিকারিক অনিকেত শর্মার দেহ উদ্ধার হয়। তাহিরের অনুগামী দুষ্কৃতীরাই অনিকেতের উপর হামলা চালিয়েছিল বলে অভিযোগ করছে মৃতের পরিবার। যার জেরে তাহির হোসেনের বিরুদ্ধে খুনের অভিযোগে সরব হয়েছে বিজেপি নেতৃত্ব।