হার্লে ডেভিডসনের লিমিটেড এডিশনের ৫১ লক্ষ টাকা দামের সিভিও ২০২০- তে সওয়ার সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি এস এ বোবদে। দেশের শীর্ষ আদালতের প্রধানকে এভাবে বাইক চালাতে দেখতে পাওয়া খুব একটা সহজ ব্যাপার নয়। তাই সেই ছবি ইতিমধ্যে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল। 

আরও পড়ুন: ঘনাচ্ছে যুদ্ধের মেঘ, কাশ্মীরে সেনা ক্যাম্পের জন্য এবার স্কুল খালির নির্দেশ, মজুত করা হচ্ছে এলপিজি

 জানা যাচ্ছে, সম্প্রতি নাগপুরে গিয়েছিলেন দেশের প্রধান বিচারপতি। উইক এন্ডের ছুটি কাটাচ্ছিলেন সেখানে। সেই সময়েই হার্লের সিভিও ২০২০ সওয়ার হয়েছিলেন তিনি। ৬৪ বছরের বোবদের পরনে ছিল  টিশার্ট, ক্যাজুয়াল প্যান্ট। সঙ্গে পায়ে  স্নিকার্স, চোখে সানগ্লাস। তাঁর আশপাশে হাজির ছিলেন অনেকেই। সেই ছবি ইতিমধ্যে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। 

 

কিন্তু এই ছবি ভাইরাল হতেই তৈরি হয়েছে নতুন বিপত্তি। কারণ জানা যাচ্ছে, ওই বাইকটি নাগপুরের এক বিজেপি নেতার ছেলের নামে রেজিস্টার্ড। নাগপুরের বিজেপি নেতা সোনবা মুসালের ছেলে রোহিত সোনবাজির নামে রেজিস্টার্ড রয়েছে হার্লে ডেভিডসন লিমিটেড এডিশনের সিভিও ২০২০ মডেলের বাইকটি। যা নিয়ে ইতিমধ্যে শুরু হয়েছে রাজনৈতিক তরজা। 

 

তবে ছেলেবেলা থেকেই বোবদের  বাইক প্রীতি সর্বজনবিদিত,বড় দুর্ঘটনাও বিচারপতি এস এ বোবদেকে বাইক থেকে দূরে রাখতে পারেনি। এমনকি সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচরপতি হওয়ার আগে এক সাক্ষাৎকারে বোববদে তাঁর বাইক প্রেমের কথাও জাহির করেছিলেন। এমনকি তাঁর একটি বাইক ছিল সেকথাও বলেছিলেন। 

আরও পড়ুন: নিয়য়ন্ত্রণরেখায় চিন এনেছে মার্শাল আর্ট ফাইটার, জবাব দিতে প্রস্তুত ভারতের 'ঘাতক' কম্যান্ডো বাহিনী

এদিকে মহারাষ্ট্রে হু হু করে করোনা সংক্রমণ ছড়াচ্ছে,এমন পরিস্থিতিতে প্রধান বিচারপতির মুখে মাস্ক না থাকা দেশবাসীকে ভুল বার্তা দেবে বলেই মনে করছে নেটিজেনদের একাংশ। এমনকী ভাইরাল হওয়া ছবিতে বোবদের মাথায় হেলমেটও ছিল না। যা নিয়ে আরও বিতর্ক তৈরি করেছে। তাঁর চারপাশে উপস্থিত লোকজন নাকি সামাজিক দূরত্ব মানেনি বলেও অভিযোগ উঠেছে।