প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বৃহস্পতিবার জানিয়েছেন তাঁর মা হীরাবেন করোনাভাইরাসের টিকা নিয়েছেন। এদিন তিনি প্রথম ডোজটি নিয়েছেন বলেও জানিয়েছেন তিনি। একই সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী দেশবাসীকে করোনাভাইরাসের টিকা গ্রহণেরও আবেদন জানিয়েছেন। 


৭১ বছরের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী গত পয়লা মার্চ করোনাভাইরাসের প্রথম ডোজটি নিয়েছিলেন। তাঁর মায়ের বয়স প্রায় ১০০। এদিন টিকা গ্রহণ করেন। দ্বিতীয় পর্বে টিকা করলেন প্রধানমন্ত্রী ও তাঁর মা। এই পর্বে টিকা গ্রহণ করেছেন লালকৃষ্ণ আডবানি, রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্ড সহ দেশের প্রথম সারির ষাটোর্ধ্ব ব্যক্তিত্বরা।  ৬০ বছরের বেশি বয়স্কদেরই দ্বিতীয় পর্বে টিকা দেওয়া হচ্ছে। একই সঙ্গে টিকা দেওয়া হচ্ছে ৪৫ উর্ধ্ব কোমর্ডিডিট রোগীদেরও। ১৬ জানুয়ারি থেকে দেশে টিকাকর্মসূচি শুরু হয়েছিল। প্রথম দফায় করোনা যোদ্ধাদেরও টিকা দেওয়া হয়েছিল। 

কেন্দ্রীয় সরকারের সর্বশেষ পরিসংখ্যন অনুযায়ী এখনও পর্যন্ত দেশে ২ কোটি ২৫ লক্ষ মানুষকে টিকা দেওয়া হয়েছে। প্রকাশিত একটি প্রতিবেদনে বলা হয়েছে সবমিলিয়ে ২ কোটি ৫২ লক্ষ ৯হাজার ৯৩ টি ভ্যাকসিন ডোজ দেওয়া হয়েছে। যারমধ্যে স্বাস্থ্য কর্মীদের দেওয়া হয়েছে ৭০ লক্ষ ৩১ হাজার, ১৪৭ টি ডোজ। ফ্রন্ট লাইন যোদ্ধাদের দেওয়া হয়েছে ৩৯ লক্ষ ৭৭ হাজার, ৪০৭টি ডোজ। দেশের বয়স্ক নাগরিকদের ৫৫ লক্ষেরও বেশি টিকা দেওয়া হয়েছে। আর ৯ লক্ষেরও বেশি অসুস্থ মানুষ টিকা পেয়ছেন।